মেইন ম্যেনু

কুকুরের সাথে স্ত্রীকেও গলায় শিকল, অতঃপর…

নাথান রিলে এবং তার বাগদত্তা “এক্সেনা” (আসল নাম অ্যালেক্স) অন্যান্য দম্পতিদের মতই সাধারণ ও সুখী জীবন যাপন করে। মাত্র কয়েক মাস আগে অনলাইনে যোগাযোগের মাধ্যমে তাদের পরিচয় হয়। তারা নিউ ইয়র্কের স্টেটেন দ্বীপে বাস করে এবং খুব সুখী জীবন যাপন করে। নাথান একজন ট্রাক ড্রাইভার হিসাবে কাজ করে, এবং প্রতিদিন হাটার জন্য তার কুকুরকে সঙ্গী হিসেবে সাথে নিয়ে যেতে পছন্দ করে। এক্সেনাও তাদের সাথে হাটতে যেতে পছন্দ করে। নাথান তাদের দুজনকেই গলায় লোহার শিকল লাগিয়ে হাঁটতে নিয়ে যায়। এক্সেনাও গলায় শিকল পরে যেতে পছন্দ করে।

তাদের দুজনের এরকম অস্বাভাবিক ছবি প্রকাশ হওয়ার পর থেকে তারা দুজনই আলোচনায় চলে আসেন। স্টেটেন দ্বীপের শপিংমলে তারা যখন যান তাদের দেখার জন্য রীতিমত মানুষেরা জড় হয়ে যায়।

নাথান তার ফেইসবুক পেইজে বলেন, ‘এটা সম্পুর্ন রূপে এক্সেনার সম্মতিক্রমে সম্ভব হয়েছে, এতে করে আমাদের সম্পর্ক আরও ঘনিস্ট হয়েছে’।

পরে তিনি নিউ ইয়র্ক ডেইলি নিউজ ডটকমকে বলেন, ‘শিকল এবং কলার আমাদের একে অপরের ভালোবাসার চিহ্ন। অন্য দম্পতিরা যেমন নিজেদের সম্পর্কের গুরুত্ব বোঝাতে রিং ব্যাবহার করে আমারা তেমন কলার ব্যাবহার করি’।

এক্সিনা বলেন, ‘এই ধরণের জীবনধারা আমিও পছন্দ করি, যখন আমি প্রথম গলায় কলার পরলাম আমি চিন্তা করলাম এমন আরও একজন খুঁজে পাওয়া প্রয়োজন। তিনি আরও যোগ করেন, ‘ যতদিন পর্যন্ত আমি আমার ‘হবু স্বামী’র সাথে আছি ততদিন পৃথিবীর কোনো সুখ আমার দরকার নাই’।

তাদের এই অদ্ভুত-স্টাইলের একটি নাম রয়েছে আরা তা হল, ‘পাপ্পি প্লে’। নাথান জানান, এতো কিছুর পরেও তাদের একটি চমৎকার দাম্পত্য জীবন রয়েছে। যেখানে তারা শিকল মুক্ত সুখী জীবন যাপন করেন।






মন্তব্য চালু নেই