মেইন ম্যেনু

ওবামা নিহত!

বিশ্বের প্রভাবশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা নিহত হয়েছেন! এ রকম সংবাদই প্রকাশ পেয়েছে খোদ মার্কিন প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম সিএনএন টেলিভিশনে।

পাঠক ভড়কে গেলেন? কিন্তু ভড়কে যাওয়ার কারণ নেই। আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী সংগঠন আল-কায়েদা প্রধান ওসামা বিন লাদেন হত্যা নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করতে গিয়ে ‘ওসামার’ স্থলে ভুল করে ‘ওবামা’ লেখা হয় টিভি চ্যানেলটির নিউজ স্ক্রলে। টিভির নিউজ অ্যাঙ্কর রাইটার ভুল করে এটি লেখেন।
তবে সংবাদটি পাঠ করার সময় সংবাদ পাঠিকার ভুল হয়নি। তিনি ওবামা না বলে ওসামাই বলেছেন।

ওসামা বিন লাদেন হত্যা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে চলছে জোর বির্তক। আর তা উসকে দিয়েছেন মার্কিন বিশেষ কমান্ডো বাহিনী নেভি সিলের দুই প্রাক্তন সদস্য। তারা নিজেদেরকে লাদেনের হত্যাকারী হিসেবে তুলে ধরেছেন। আর এতেই বেধে গেছে গোলমাল।

নেভি সিলের দুই প্রাক্তন সদস্যের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র এবং বিভিন্ন দেশের গণমাধ্যমে ঝড় ওঠে। গণমাধ্যমগুলো এই খবরটিকে গুরুত্বের সঙ্গে করে ফলাও প্রচার করে

সিএনএন টিভি রোববার এ ব্যপারে সংবাদ প্রচার করছিল। এক সময় চ্যানেলটির স্ক্রলে ‘সিল হু ক্লেইমস হি কিলড ওবামা আন্ডার অ্যাটাক’ শিরোনাম লেখা উঠে আসে। এটি স্ক্রলে ৫০ সেকেন্ড ধরে চলছিল। বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রে হৈ চৈ ফেলে দেয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে শুরু হয় সমালোচনা-আলোচনার ঝড়।

রিচার্ড নামের এক ব্যক্তি টুইটারে লিখেছেন, ‘আমাদের অধিকাংশই প্রেসিডেন্ট ওবামা এবং লাদেনের মধ্যে তফাত করতে জানে না।’

পিটন হেড নামের অপর একজন রসিকতা করে লিখেছেন, ‘কেউ চাইলে গোয়েন্দাদের খবর দিতে পারো। ওবামা খুন হয়েছেন!’
অনেকে আবার ওবামার নিহত হওয়ার খবর সত্য বলে ধরে নেন। তাদের একজন টুইটারে লিখেছেন, ‘নেভি সিল আয়ত্বের বাইরে চলে গেছে। তাদের শাস্তি হওয়া উচিত।’
ফক্স নিউজের এক রিপোর্টার মজা করে বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট ওবামা ঘোষণা দিয়েছেন তিনি মারা গেছেন।’

সিএনএনের সংবাদ কর্মী টিভির স্ক্রলে এটি ভুল করে লিখেছেন নাকি ইচ্ছা করেই লিখেছেন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

দুই মাসে আগে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরকালে তার নাম ভুলভাবে বলায় ভারতের রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল দূরদর্শনের এক সংবাদ পাঠিকা চাকরি হারান।

তথ্যসূত্র : ফক্স নিউজ, বাজফিড ডটকম।






মন্তব্য চালু নেই