মেইন ম্যেনু

এর শেষ কোথায়? প্রেমের নামে যৌন মিলন। কোন দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ?

এই সময়ের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা হ্যাপি- রুবেলের অবৈধ যৌন মিলন ও পড়ে ধর্ষন মামলা। বিয়ে আগে প্রেমের নামে কয়েকবার শারীরিক সম্পর্ক অর্থাৎ যৌন মিলন। যা নীতি নৈতিকতার অবক্ষয়ও বটে। কিন্তু তারা কি একটিও বারও এ চিন্ত করে দেখেছেন বিষয়টি।

এ ঘটনা মিডিয়া আসাতে হয়ত আমরা জানতে পেরেছি। কিন্তু হাজার হাজার ঘটনা ঘটছে বর্তমান সময়তে। যা মিডিয়াতে না আসায় জানতে পারছি না। কিন্তু বাস্তবে যদি খবর নেয়া হয় শহর থেকে গ্রাম, আর গ্রাম থেকে শহরের উঠতি ছেলেমেয়েরা শারীরিক সম্পর্ক জড়িয়ে পরছে।

ছেলেরা দুষ্টমির ছেলে মেয়েদের সতিত্ব নষ্ট করতে ব্যস্ত। মনে হচ্ছে ছেলেদের সতিত্বের প্রয়োজন নেই। আর মেয়েরাও নিজের সতিত্ব বিলিয়ে দিতে বিন্দু মাত্র দ্বিধাবোধ করছে না। অর্থ কিংবা প্রেমের ফাঁদে পড়ে বিলিয়ে দিচ্ছে নিজেদের সতিত্ব।

আর যার কারনে বাড়ছে বিয়ের আগে অন্তঃসত্বা, গর্ভপাত, হত্যা, আত্নহত্যা, মামলাসহ নানা অসমাজিক কর্মকান্ড। প্রেম আর শারীরিক সম্পর্কই যেন বর্তমান সময়ের ছেলেমেয়ের একমাত্র কাজ।

আর এই অসমাজিক কর্মকান্ডে শুধু ছেলেমেয়েরাই নয় রাষ্ট্র জড়িত প্রত্যক্ষভাবে। আমরা ষষ্ঠ শ্রেণীতে শারীরিক শিক্ষা নামে কি শিক্ষাচ্ছি ভবিষ্যতরে কান্ডারিদের?

এর শেষ কোথায় ? দেশ এর শেষ দেখতে চায়।






মন্তব্য চালু নেই