মেইন ম্যেনু

এবার বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল ইতি

রাজশাহী : পবায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এর হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী ইতি খাতুন। ইতি উপজেলার পারিলা ইউনিয়নের চক পারিলা গ্রামের মো.একাবরের মেয়ে ও পাশ্ববর্তী স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

এ বিষয়ে নবদিগন্ত মহিলা উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক রাজিয়া সুলতানা জানান, বুধবার সকালে তিনি তার কর্মী আসমার মাধ্যমে জানতে পারেন যে চক পারিলা গ্রামে ১৮ বছরের কম বয়সের এক স্কুল পড়ুয়া মেয়ের বিয়ে হচ্ছে।

বিষয়টি জানতে পেরে পবা উপজেলার ইউএনও কাউসারুল ইসলামকে জানান এবং তিনি নিজে তার কর্মীসহ বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। ইউএনও অফিসের কাজে ঢাকায় অবস্থান করায় তিনি পবা থানা পুলিশকে বিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে বিয়ে ভেঙ্গে দেন।

নির্বাহী পরিচালক রাজিয়া এবং পবা থানার এসআই রাসেল ইতির বাবা একাবরের থেকে ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবনা এ মর্মে লিখিত নিয়ে তাদের ছেড়ে দেন এবং বর পক্ষকে পাঠিয়ে দেন।

তিনি আরো জানান, পবা থানার অবস্থান রাজশাহী মহানগরীর চারিদিকে অবস্থিত হওয়ায় এ অঞ্চলে বাল্যবিয়ের প্রবণতা অনেক বেড়ে গেছে। গত শুক্রবার উপজেলার রামচন্দ্রপুর এলাকায় প্রায় চারটি বাল্য বিয়ে হয়।






মন্তব্য চালু নেই