মেইন ম্যেনু

এক পুলিশকর্মী নেচেছিলেন শাহরুখের সঙ্গে, অন্য এক পুলিশকর্মী নাচ দেখিয়ে পেলেন ধিক্কার

হরিয়ানার এক পুলিশকর্মীর এই ভিডিও এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। শাহরুখের সঙ্গে নাচ করে কলকাতা পুলিশের এক কর্মীকে ব্যাপক সমালোচনায় পড়তে হয়েছিল। হরিয়ানার ঘটনা প্রমাণ করল নারীদের নিয়ে সমাজের বিধিনিষেধ এখনও দূর হয়নি।

সহকর্মীদের আবদার। খানিক বিশ্রামের ফাঁকে মনোরঞ্জন। আর সেই কারণে উদ্যোগী হয়েছিলেন হরিয়ানা পুলিশের এক মহিলা কনস্টেবল। নিজেদের মধ্যে হাসাহাসি-রসিকতার মাঝেই ব্ল্যাকবোর্ডের সামনে ছোট্ট চৌকিটাতে উঠে পড়েছিলেন তিনি। মোবাইলে বাজানো গানের তালে তালে পুলিশি পোশাকেই ঢেউ তুলেছিলেন শরীরে। হরিয়ানা পুলিশের সেই কনস্টেবলের নাচ এখন ভাইরাল হয়ে উঠেছে ইউটিউবে। এই মজার আড্ডার কোনও ভিডিও কেউ একজন হোয়াটসঅ্যাপে আপলোড করে দিয়েছিল। আর সেখান থেকেই তা পরে ইউটিউবে আপলোড হয়ে যায়।

ইউটিউবে আপলোড হওয়া এই ভিডিও-কে নিয়ে তুলকালাম শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রায় আড়াই লক্ষ লোক এই ভিডিও দেখেছেন। হোয়াটসঅ্যাপ থেকে শুরু করে অন্য সব সোশ্যাল মিডিয়াতেও ভাইরাল হয়েছে এই ভিডিও। দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে এটি। এমনকী, ইউটিউবে একই ভিডিও-কে বারবার আপলোড করা হয়েছে। ইউটিউবের যে মূল ভিডিও থেকে এই খবর ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিওতে শিরোনাম দেওয়া হয়েছে, ‘লেডি পুলিশ ডান্সিং অন হরিয়ানভি সং লাড পিয়া কে’। নাচের জন্য এই মহিলা কনস্টেবলকে উদ্দেশ্য করে একের পর এক নানা অশ্লীল মন্তব্যও পোস্ট করা হয়েছে। যদিও, অনেকেই আবার মহিলা কনস্টেবলকেই সমর্থন করেছেন এবং অশ্লীল মন্তব্য পোস্ট করা সোশ্যাল মিডিয়া ইউজারদের সমালোচনাও করেছেন।

কয়েক বছর আগে কলকাতায় পুলিশ কর্মীদের এক অনুষ্ঠানে অতিথি হয়েছিলেন শাহরুখ খান। নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে হওয়া সেই অনুষ্ঠানে শাহরুখ তাঁর সঙ্গে নাচ করার জন্য এক মহিলা পুলিশ কর্মীকে ডেকে নিয়েছিলেন। কিন্তু, শাহরুখের কোলে সেই মহিলা পুলিশ কর্মীর ছবি নিয়ে প্রবল বিতর্ক হয়েছিল। পুলিশের পোশাকে এই নাচ নিয়মবিরুদ্ধ কি না তা নিয়ে তর্ক-বিতর্কও লেগেছিল। যদিও, ওই মহিলা পুলিশ কর্মী জানিয়েছিলেন, শাহরুখের মতো বড় মাপের অভিনেতা হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় এবং সেখানে উপস্থিত পুলিশের বড় কর্তাদের সম্মতিতেই তিনি নেচেছিলেন।-এবেলা






মন্তব্য চালু নেই