মেইন ম্যেনু

একেই বলে ‘সারপ্রাইজ গিফট’! জন্মদিনে ছেলেকে কী উপহার দিলেন এই মা?

দাম হয়তো নেই, তবুও দামি। জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়িতে ছেলেকে জন্মদিনে এমনই ‘অবাক উপহার’ দিলেন এক মা। সত্যিকারের ‘সারপ্রাইজ গিফট’ বোধহয় একেই বলে।

জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ির বাসিন্দা গৃহবধূ গার্গী চৌধুরী দাস ছেলের জন্মদিনে দেহদান করে ছেলের জন্মদিন পালন করলেন। ময়নাগুড়ি পাওয়ার হাউজ মোড় সংলগ্ন দাস পরিবারের গৃহবধূর এমন উদ্যোগে সাধুবাদ জানিয়েছেন সবাই। দেহদানের মাধ্যমে ছেলের জন্মদিনের সেলিব্রেশন করার অনন্য নজির সৃষ্টি করলেন গার্গী দেবী।

ছেলের জন্মদিনের সেলিব্রেশনে গার্গীদেবী

ময়নাগুড়ির গৃহবধূ গার্গী চৌধুরী দাসের ছেলে পার্থিব দাসের চতুর্থ জন্মদিনে মরণোত্তর দেহদানের অঙ্গীকারবদ্ধ হলেন। স্ত্রীর এমন উদ্যোগে খুশি গার্গী চৌধুরী দাসের স্বামী পার্থসারথী দাস। তিনি জানান, ‘আমি প্রথমে জানতেই পারিনি গার্গী দেহদান করতে চলেছে। বিয়ের পর থেকেই আমাকে বলতো দেহদান করব ।আমি বলেছিলাম বয়স হলে কোরো। কিন্তু ছেলের জন্মদিনে দেহদান করবে এটা ভাবতেই পারিনি। গার্গীর এমন উদ্যোগে পরিবারের সবাই খুব খুশি।’ পার্থসারথীবাবু জানান, সোমবার রাতেই ছেলের জন্মদিনের দিন দেহদানের কথা তাঁকে জানান গার্গীদেবী। অবশ্য মাত্র চার বছর বয়সের পার্থিবের পক্ষে মায়ের উপহারের গুরুত্ব হয়তো বোঝা সম্ভব নয়।

গার্গীদেবীর দেহদানের অঙ্গীকার পত্র

কোচবিহার ব্লাড ডোনার্স অর্গানাইজেশন-এর পক্ষে রাজা বৈদ্য জানান, ‘আজই গার্গীদেবী নিজের দেহ দান করেছেন।’






মন্তব্য চালু নেই