মেইন ম্যেনু

এই ষাঁড়ের দাম ৯ কোটি টাকা!

যুবরাজ তার নাম। নামও যেমন, মেজাজেও তেমন। খাওয়া-দাওয়াও তাক লাগানো। দিনে ২০ লিটার দুধ, ১০ কেজি ফল, ৫ কেজি খড় থাকে তার খাবারের তালিকায়। মহিষ হলেও রীতিমতো সুপারস্টারই বলা যায় তাকে।

এর আগেও একবার গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছিল বাজারে ওঠা দামের কারণে। এবার যুবরাজের দাম উঠল সর্বোচ্চ সোয়া ৯ কোটি টাকা। ভারতের উত্তরপ্রদেশ ও মধ্যপ্রদেশ সীমান্তে চিত্রকূট এলাকায় গ্রামোদয় মেলার আয়োজন করা হয়েছে। সেখানেই এখন আপাতত আছে যুবরাজ। আর এই মেলায় তার দাম উঠেছে ৯ কোটি টাকারও বেশি।

তবে যুবরাজ যে এবারই প্রথম খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে তা নয়। এর আগেও তার দামের জন্য সে নজর কেড়েছে। তার খাবারের কথা শুনে বিস্মিত হয়েছেন অনেকে। সুপারস্টার যুবরাজ কিন্তু রয়েছে বহাল তবিয়তে। থাকার কারণও অবশ্য আছে। কেননা বিরল প্রজাতির এই মহিষের শুক্রাণু থেকে জন্ম দেয়া হয় অন্যান্য মহিষের।

১০ থেকে ১৪ মিলি শুক্রাণুকে লঘু করে তৈরি হয় ৭০০ থেকে ৯০০ ডোজ। প্রতিটি ডোজ বিক্রি করে আলাদা উপার্জন হয় মালিকের। সেই কারণেই তার এত দাম। যদিও যুবরাজের মালিক করমবীর সিংয়ের কাছে সে আসলে ঘরের লোক। আর তাই যত দামই উঠুক না কেন তাকে বিক্রি করতে রাজি নন তিনি।

আসলে যুবরাজের পিছনে তিনি যেমন খরচ করেন, তেমন তার আয়ও কম নয়। দিনে প্রায় ৩-৪ হাজার টাকা খরচ হয় তার। এর বিনিময়ে বছরে উপার্জন প্রায় ৫০ লাখ টাকা। তবে যুবরাজের স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে কোনও রকম অবহেলা করেন না তিনি। তার সেবাতেই তরতর করে দাম উঠছে যুবরাজের। ভবিষ্যতে যেন আরও নজর কাড়তে পারে সেই প্রত্যাশাই করছেন মালিক করমবীর সিং।






মন্তব্য চালু নেই