মেইন ম্যেনু

ইসলাম গ্রহণকারী সেই অস্ট্রেলিয়ান নারী এখন কি করছেন?

অস্ট্রেলিয়ান নারী সিলমা ইহরাম ১৯৭৬ সালে ইন্দোনেশিয়ায় বেড়াতে গিয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন। তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র ২৪ বছর ।এই তরুণী খ্রিষ্টান ধর্ম ত্যাগ ইসলাম গ্রহণ করেন।তাহলে এখন তিনি কী করছেন? এটা জানার আগ্রহ অনেকের। তাই সিলমার বর্তমান অবস্থান ও কার্যক্রম নিম্নে তুলে ধরা হলো।

সিলমার ব্যক্তিগত প্রোফাইল এবং অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন ব্লকপোস্ট ও ওয়েবসাইট গেটে জানা যায়, সিলমা ইহরাম ১৯৫৪ সালে এক মধ্যবিত্ত খ্রিস্টান পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি সিডনিতেই প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭১ সালে মেট্রিকুলেশন পাস করেন। তিনি অস্ট্রেলিয়ার জেমস কোক ইউনিভার্সিটি থেকে মেরিন বায়োলজি বিভাগ ব্যাসেলর ডিগ্রী অর্জন করেন।

স্কুল জীবন থেকেই ধর্ম নিয়ে তার মনে নানা প্রশ্ন জাগে, তাই তিনি সেই কিশোরী বয়স থেকেই সত্য সন্ধানে মনোযোগী হন।এরপর তিনি ১৯৭৬ সালে ইন্দোনেশিয়ায় বেড়াতে গিয়ে মুসলিমদের সাথে কয়েকমাস বসবাস করার সময় ইসলাম সম্পর্কে অনেক কিছু জানার চেষ্টা করেন। অবশেষে স্বেচ্ছায় তিনি সেখানে ইসলাম গ্রহণ করেন।এরপর তিনি অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে এসে ইসলাম প্রচার-প্রসারে নিজেকে নিয়োজত করেন।

বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়ান মুসলিম উইমেন’স অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান। তিনি অস্ট্রেলিয়ায় মুসলমানদের মাঝে শিক্ষা বিস্তার এবং জাতিগত সহনশীলতার আদর্শ প্রচারে একজন পাইউনিয়ার হিসেবে কাজ করছেন। সিডনিতে তিনি নূর আল হুদা ইসলামিক কলেজ নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। প্রতিষ্ঠা লগ্নে তিনি এর অধ্যক্ষ ছিলেন।তিনেই সর্বপ্রথম ১৯৮০ সালে সিডনীতে নারীদের জন্য দোকান প্রতিষ্ঠা করেন।

তিনি সিলমা ইহরাম ২০০৭ সালে ঐক্য পার্টির ফেডারেল নির্বাহী নির্বাচিতহন এবং নিউ সাউথ ওয়েলস এর উচ্চকক্ষের জন্য প্রার্থী হয়েছিলেন। ২০০৭ সালে জাতীয় নির্বাচনে পিঙ্গল আসনের জন্য অস্ট্রেলিয়ান ডেমোক্রেটস প্রার্থী হয়ে নির্বাচনী দৌড়ে প্রথম দুই মুসলিম নারী হিসেবে মূলধারার রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংযুক্ত হন। একই বছরে ফেডারেল নির্বাচনে রিড বিভাগের জন্য ডেমোক্রাতস প্রার্থী হন।

ইসলামি শিক্ষার উপর তার বেশ কয়েকটি বই রয়েছে এবং অসংখ্য আর্টিকেল দেশ-বিদেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া তিনি দেশে-বিদেশে ইসলামিক সেমিনার-সিম্পোজিয়া ও কনফারেসেন্স যোগদান করে বক্তৃতা করেন। বর্তমানে তিনি ইসলামিক বিভিন্ন কর্মকান্ডে খুবই ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। প্রতিদিনই তিনি কোথা্ও না কোথাও বক্তৃতা করেন।

এখনো তার তত্ত্বাবধানে অস্ট্রেলিয়ায় নও মুসলিমের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। দেশটির সবচেয়ে জনবহুল শহর সিডনিতে প্রতি সপ্তাহে অন্তত ২ জন মানুষ ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করছেন। এদের বেশিরভাগই নারী। এই শহরে বছরে শতাধিক লোক ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করছেন। এভাবে অস্ট্রেলিয়ায় ক্রমেই মুসলিম জনসংখ্যা বাড়ছে। সেই সাথে বাড়ছে মসজিদ ও ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্র। সবমিলেই সিলমা ইহরাম অস্ট্রেলিয়ায় ইসলামি গণজাগরণে একজন পাই্ওনিয়ার হিসেবে ভূমিকা রেখে চলেছেন।






মন্তব্য চালু নেই