মেইন ম্যেনু

ইসরায়েল–ফিলিস্তিন যুদ্ধ বন্ধে এগিয়ে আসছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

ইজরায়েল ও ফিলিস্তিনের যুদ্ধে বিরতি আনার সবরকম প্রস্তুতি নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এমনটাই জানিয়েছেন খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা।
ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামেন নেতানিয়াহুর সঙ্গে এক ফোনালাপকালে তিনি এ কথা বলেন।
ওবামার সঙ্গে কথাপোকথনের পূর্বে নেতানিয়াহু ফিলিস্তিনে ইসরায়েলী হামলা সম্পর্কে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, এ যুদ্ধ পরিকল্পনা মাফিক এগোচ্ছে এবং আরও অনেক ধাপ এখনও বাকি আছে।
বারাক ওবামা নেতানিয়াহুকে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র চলমান নিষ্ঠুরতায় বিরতি আনার প্রস্তুতি নিয়ে চলেছে। একইসঙ্গে ২০১২র নভেম্বরে কৃত দু দেশের যুদ্ধবিরতি চুক্তিকে আবারওবিলবৎ করতে তৎপর হতে চাইছে।’
এছাড়া পরিস্থিতি আরও খারাপ দিকে মোড় নেয়ার ব্যাপারে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি। এবং সাধারণ মানুষের প্রাণ বাঁচাতে যে কোন উদ্যোগ নিতে সঙ্কোচ করবেন না বলে জানান ওবামা।
এছাড়া জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি-মুন দুই দেশকে ধৈর্য ধারণ করে নিবৃত হতে বলেছেন। তিনি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যকে আবারও পুরো দমে যুদ্ধে দেখতে চান না তিনি।
ফিলিস্তিনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার থেকে গাজায় ইসরায়েলী হামলা শুরু হওয়ার পর থেকে এ অন্তত ৯০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।
অপরদিকে ইসরায়েলের দিক থেকে কোন মৃত্যুর খবর আসেনি। বিবিসি।
ইসারয়েলের ভাষ্য বৃহস্পতিবারা নাগাদ তারা গাজার ১০০এরও বেশি স্থানে বোমা হামলা চালাতে বাধ্য হয়েছে, কেননা ফিলিস্তিনি সশস্ত্র বাহিনী তাদের পরিমণ্ডলে রকেটবোমা ছুড়েছিল।
গত জুন মাসে পশ্চিম তীর থেকে ফিলিস্তিনি ক্ষমতাসীন হামাস দলের সশস্ত্র সেনারা ইসরায়েরে একাধিক রকেটবোমা সহকারে হামলা চালায়। হামাসের ভাষ্য, তাদের ছয় সদস্যকে ইসরায়েল হত্যা করেছে। ইসরায়েল এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।
সম্প্রতি তিন ইসরায়েলি কিশোর অপহৃত, অতঃপর নিহত এবং ‘তার জের ধরে’ এক ফিলিস্তিনি কিশোর অপহৃত হলে পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়ে ওঠে।
ইসরায়েল, ফিলিস্তিনি সীমান্তে সেনা মোতায়েন করেছে।






মন্তব্য চালু নেই