মেইন ম্যেনু

ইসরায়েলের সঙ্গে আ.লীগের পরোক্ষ চুক্তি আছে

বিএনপির সঙ্গে নয় বরং আওয়ামী লীগের সঙ্গেই ইসরায়েলের পরোক্ষ চুক্তি রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মহানগর বিএনপির নব গঠিত আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর লেডিস ক্লাবে ডক্টর্স অ্যাসোসিয়েশনের (ঢাকা মেডিকেল কলেজ শাখা) উদ্যোগে এক ইফতার মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির সঙ্গে ইসরায়েলের কোনো সম্পর্ক নেই। ইসরায়েলের সঙ্গে ভারতের কংগ্রেস সরকারের প্রতিরক্ষা চুক্তি হয়েছে। আর এই আওয়ামী লীগকে টিকিয়ে রেখেছে ভারতের কংগ্রেস।’

এ সময় কথা বলার আগে আয়নায় নিজেদের চেহারা দেখার পরামর্শ দেন মির্জা আব্বাস।

‘মুক্তিযোদ্ধাদের বাদ দিয়ে ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটিতে রাজাকারের ঠাঁই হয়েছে’ খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলামের এমন কথার জবাবে মির্জা আব্বাস বলেন, ‘কামরুলের কথায় আমি খুব কষ্ট পেয়েছি। তার সঙ্গে জগন্নাথ কলেজ, সোহরাওয়ার্দী কলেজে একসঙ্গে উঠাবসা করছি, এক সঙ্গে খেলাধূলা করেছি। আমি বলতে চাই সাদেক হোসেন খোকা যে সেক্টরে যুদ্ধ করেছেন। আমিও একই সেক্টরে যুদ্ধ করেছি। সুতরাং এ ধরণের প্রলাপ বকে লাভ হবে না।’

ঈদের পর বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ঈদের পর আমাদের অহিংস আন্দোলন শুরু হবে। সেকারণে আওয়ামী লীগের মধ্যে অস্বস্তি দেখা দিচ্ছে। কিন্তু বিএনপি গণতান্ত্রিক দল। অগণতান্ত্রিক, অসহিষ্ণু দল নয়, ভয়ের কারণ নেই, আমরা অহিংস আন্দোলন করব, আপনারা সন্ত্রাসী বাহিনী লেলিয়ে দেবেন না। আন্দোলনে আক্রমণ চালাবেন না, স্বাভাবিক আন্দোলন হবে।’

উল্লেখ্য, এর আগে গত রোববার এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাবেক মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছিলেন, ‘গাজায় হামলাকারী ইহুদিদের সঙ্গে বিএনপির যোগাযোগ থাকতে পারে। গতবার যখন ইসরায়েল গাজায় হামলা চালালো তখন তারা ক্ষমতায় ছিল। আমরা বিরোধী দলে থেকে সংসদে শোক প্রস্তাব করি কিন্তু তারা রাজি হয়নি। এখন হামলা হচ্ছে সেই বিষয়ে তারা নীরব ভূমিকা পালন করছে, যা প্রতিনিয়তই ইহুদিদের সঙ্গে যোগাযোগ থাকার প্রমাণ দিচ্ছে।’






মন্তব্য চালু নেই