মেইন ম্যেনু

আম নিয়ে অপপ্রচার বন্ধের দাবি

রাজশাহী: রাজশাহীর আমে কেমিক্যাল ও ফরমালিন রয়েছে এমন অপপ্রচার করে এক শ্রেণীর স্বার্থান্বেষী মহল রাজশাহীর মিষ্টি আমকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে এ এলাকার আমচাষিরা ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়বেন। এ সময় আম নিয়ে এমন অপপ্রচারে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন চারঘাট ও বাঘার আমচাষি ও ব্যসায়ীরা।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার ভায়ালক্ষিপুর ইউনিয়নের বুদিরহাট বাজার এলাকায় রাজশাহী অঞ্চলের আম নিয়ে অপপ্রচার বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন চাষি ও ব্যবসায়ীরা।

এসময়, তাদের আমে কেমিক্যাল নেই দাবি করে এসব অপপ্রচার বন্ধে স্থানীয় প্রশাসনসহ জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান রাজশাহীর এ দুই উপজেলার আমচাষি ও ব্যবসায়ীরা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘গত বছর শুরুর দিকে হঠাৎ করেই সারা দেশে অপপ্রচার শুরু হয় রাজশাহীর আমে ফরমালিন ও কেমিক্যাল মেশানো হচ্ছে। এমন অপপ্রচারে আমে ফরমালিন না থাকলেও প্রশাসন ফরমালিন রয়েছে এমন অজুহাতে কয়েক কোটি টাকার আম ধ্বংস করে ফেলে।’ এবার চারঘাট-বাঘার আমে ফরমালিন পাওয়া গেলে তারা ক্ষতিপূরণ দেবেন বলেও চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন ব্যবসায়ীরা।

বক্তারা আরও বলেন, ‘মিথ্যা অপপ্রচারে দেশের বিভিন্ন বাজারে রাজশাহীর আম বিক্রি কমতে শুরু করে। এতে করে আমচাষি ও ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে চরম ক্ষতির মুখে পড়েন। এ ক্ষতি সামলাতে এবার আমচাষি ও ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন ব্যাংক ও এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে চলতি বছরে আমচাষ ও ব্যবসা শুরু করেছেন।’ এবার অপপ্রচার শুরু হলে আমচাষি ও ব্যবসায়ীরা পথে বসবেন বলে জানান।

রাজশাহীর চারঘাট-বাঘার আমচাষি ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান শওকত আলী বুলবুলের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- সমিতির সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম মান্নাফ, নছিমুদ্দিন, হাবিবুর রহমান, নজরুল ইসলাম, কাবিল উদ্দিন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, স্থানীয় প্রশাসনের নির্দেশে ৫ জুন পর্যন্ত চারঘাট-বাঘায় আম ভাঙা নিষেধ রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই