মেইন ম্যেনু

আবুল হোসেনকে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘যেহেতু ভুল তথ্য ও মিথ্যা অপরাধে সৈয়দ আবুল হোসেনকে মন্ত্রিত্ব হারাতে হয়েছে, তাকে বিনা দোষে দুর্নীতির অভিযোগ বইতে হয়েছে, তার ব্যক্তিগত ইমেজ ক্ষুণ্ন হয়েছে, সেহেতু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবুল হোসেনের মন্ত্রিত্ব পুনর্বিবেচনায় নিয়ে তাকে রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করবেন বলে আমার বিশ্বাস।’

বুধবার গণমাধ্যমে দেওয়া এক বিবৃতিতে এরশাদ এ কথা বলেন।

বিবৃতিতে এরশাদ বলেন, ‘পদ্মা সেতু আন্তর্জাতিক ও দেশীয় ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিল, এটা প্রমাণিত। যাদের মিথ্যাচারে ও ষড়যন্ত্রে পদ্মা সেতু বিতর্কিত হয়েছে, যেসব পত্রিকা উদ্দেশ্যমূলকভাবে তৎকালীন মন্ত্রী, সরকারি কর্মকর্তা ও সরকারকে অহেতুক হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করেছে, যাদের কারণে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাদের মাফ চাওয়া উচিত।

এরশাদ আরও বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ কানাডার আদালতে খারিজ হওয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের একটি দুঃস্বপ্নের অবসান ঘটল। তিনি প্রশ্ন রাখেন, দীর্ঘসূত্রতা, প্রকল্প ব্যয় বেড়ে যাওয়া, দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হওয়ার দায় কে নেবে?






মন্তব্য চালু নেই