মেইন ম্যেনু

আগামী দশ বছরের মধ্যে ইসরাইলের ধ্বংস অনিবার্যঃ সিআইএ

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ বলেছে, ইহুদিদের বিপরীত অভিবাসন তথা ইসরাইল ছেড়ে নিজ নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার প্রক্রিয়ায় আগামী দশ বছরের মধ্যে ইসরাইলের ধ্বংস অনিবার্য। অর্থাৎ ২০২৫ সাল নাগাদ ইসরাইল বিলুপ্ত হবে।

সিআইএ’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ইসরাইল-বিহীন মধ্যপ্রাচ্যে নিজেদের উপস্থিতির জন্য প্রস্তুত হতে পারে, কারণ ইসরাইলের বিলুপ্তি একটি অনিবার্য বিষয়।

ইসরাইলের প্রতিবেশী কয়েকটি দেশে ইসলামপন্থীদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হওয়ার ঘটনা তুলে ধরে সংস্থাটি বলেছে, ইহুদিদের উচিত তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবা ও ইসরাইল থেকে নানা দেশে চলে যাওয়া বা বিপরীত অভিবাসন শুরু করা। (উন্নত ও শান্তিপূর্ণ জীবন-যাপনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে লাখ লাখ অনারব ইহুদিকে দশকের পর দশক ধরে বিশ্বের নানা দেশ থেকে ফিলিস্তিনে অভিবাসী করেছে ইহুদিবাদীরা।)

সিআইএ’র প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, ইহুদিবাদী নেতারা ফিলিস্তিনে একটি নিরঙ্কুশ ইহুদি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার যে স্বপ্ন দেখে আসছেন তাকে বাস্তবে রূপ দেয়া এ পর্যন্ত তাদের পক্ষে সম্ভব হয়নি, বরং ওই স্বপ্ন বাতাসে বিলীন হয়ে গছে। তাই ফিলিস্তিনে নানা ধর্মের অনুসারীদের নিয়ে একটি রাষ্ট্র গড়ে তোলার অপেক্ষা করাই সঠিক কাজ হবে বলে সিআইএ’র ওই রিপোর্টে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, কিছুকাল বা কয়েক বছর আগেও সিআইএ এক রিপোর্টে বলেছিল, দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদী সরকারের মতই বর্ণবাদ-ভিত্তিক ইসরাইল ২০ বছরের মধ্যে অবশ্যই বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

নিরপেক্ষ বিশ্লেষক ও ইসলামী ইরানের নেতারাও বলে আসছেন যে চরম ইসলাম-বিদ্বেষী জালিম শক্তি হিসেবে ইসরাইলের ধ্বংস অনিবার্য। ইসরাইল এক সময় মধ্যপ্রাচ্যে অপরাজেয় শক্তি হিসেবে গর্ব করতো। কিন্তু সাম্প্রতিক বছরগুলোতে হিজবুল্লাহ ও হামাসের মত শক্তিগুলোর হাতে বার বার চপেটাঘাত খেয়েছে ইসরাইল। অথচ হিজবুল্লাহ ও হামাস পরিপূর্ণ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতারও অধিকারী নয়।






মন্তব্য চালু নেই