মেইন ম্যেনু

অবশেষে চলেই গেলেন হিউজ

বলের আঘাতে মাত্র ২৫ বছর বয়সেই প্রাণ গেল অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার ফিলিপ হিউজের। মঙ্গলবার শেফিল্ড শিল্ডে প্রতিপক্ষ বোলারের বাউন্সারে আঘাত পেয়ে কোমায় চলে যাওয়ার ৪৮ ঘণ্টার কাছাকাছি সময়েই না ফেরার জগতে চলে গেলেন এ প্রতিভাবান তরুণ। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে।

বৃহস্পতিবার সকালে অস্ট্রেলিয়া দলের চিকিৎসক পিটার ব্রুকনার এক বিবৃতে বলেন, ‘অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে সবাইকে জানাতে হচ্ছে যে কিছুক্ষণ আগে ফিলিপ হিউজ মৃত্যুবরণ করেছেন। আসলে মঙ্গলবার আঘাত পাওয়ার পর আর কখনোই চেতনায় ফেরেনি সে। এখন হিউজকে তার পরিবার ও কাছের লোকেরা ঘিরে রেখেছেন।’ তিনি আরো বলেন, ‘কঠিন এই দুঃখের সময় ক্রিকেট সম্প্রদায় হিসেবে আমরা হিউজ ও তার পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করছে।’

মঙ্গলবার সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অস্ট্রেলিয়ান শেফিল্ড শিল্ডের খেলায় আহত হয়ে মাঠ ছাড়েন এ অসি ক্রিকেটার। মাথায় হেলমেট পরা থাকলেও দুর্ভাগ্যের মুখোমুখি হতে হয় শেন ওয়াটসন-মাইকেল ক্লার্কদের এ সতীর্থকে। সাউথ অস্ট্রেলিয়া ও নিউ সাউথ ওয়েলসের মধ্যকার খেলার সময় এই দুর্ঘটনা ঘটে। মূলত প্রতিপক্ষের বোলার শিন অ্যাবটের ছোড়া একটি শট বলে হুক করতে গেলে পরাস্ত হন হিউজ। আর সেই বলটা হেলমেটের ফাঁক গলে মাথায় আঘাত হানে ২৫ বছর বয়সী ওপেনিং ব্যাটসম্যানের।Phil-Hughes-Head-Injury

আঘাত পেয়ে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকার পর উইকেটের মধ্যেই পড়ে যান হিউজ। এ অবস্থায় মাঠেই কিছুক্ষণ চিকিৎসা দেয়া হয় এই ক্রিকেটারকে। কিন্তু দ্রুত অবস্থার কোনো উন্নতি না হলে তড়িঘড়ি করে স্থানীয় সেন্ট ভিনসেন্ট হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে। এরপর সেখানে কোমায় চলে যাওয়া ক্রিকেটারকে নিবিড় পরিচর্চা কেন্দ্রে রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়। কিন্তু কোনো অবস্থার উন্নতি হয়নি। উপরন্তু ৪৮ ঘণ্টা না যেতেই থেমে যেতে হলো প্রতিভাবান অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারকে।

প্রসঙ্গত, অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলশে জন্মগ্রহণ করেন হিউজ। যিনি ২০০৯ সাল থেকে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২৬টি টেস্ট খেলেছেন। আর ২০১৩ সালে ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষিক্ত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ২৫ ওয়ানডে খেলা হয়েছে বাঁহাতি অস্ট্রেলিয়ান ওপেনারের।






মন্তব্য চালু নেই