মেইন ম্যেনু

অপরাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসতে প্রয়োজন গণতান্ত্রিক সংস্কার

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘জঙ্গিবাদীদের মাথাচাড়া দেয়ার অপরাজনীতির চক্র থেকে বেরিয়ে আসতে গণতান্ত্রিক সংস্কারে হাত দেবার সময় এসেছে। বর্তমান গণতন্ত্রকে আরো অংশগ্রহণমূলক, স্বচ্ছতর এবং সুশাসন নিশ্চিত করতে দলবাজি-দুর্নীতি বন্ধ এবং সংবিধানের ৭০ ধারা সংশোধনের বিষয়গুলো গুরুত্বের দাবি রাখে।’

রোববার দুপুরে বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার কক্ষে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ‘জাতীয় উন্নয়ন ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে সুশাসনের বিকল্প নেই’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বাংলাদেশে গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, আমলাতন্ত্র থেকে ঔপনিবেশিক জটিলতাগুলো দূর করা, প্রশাসনিক পদ্ধতির সংস্কার এবং ঘরের ভেতরের দলবাজি-দখলবাজি বন্ধের বিকল্প নেই।’

তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘গণতন্ত্রের শত্রু জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বিএনপির কোনো অবস্থান নেই। তারা গণতান্ত্রিক সরকারে বিশ্বাসী নয় বরং জঙ্গিবাদের হাত ধরে সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে ও প্রতিপক্ষকে জানে মেরে ফেলার রাজনীতি করে।’

‘জঙ্গিবাদ দমনে ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় রাজনীতিতে জাসদ অপরিহার্য’ উল্লেখ করে ইনু বলেন, ‘সমগ্র প্রগতিশীল ও অসাম্প্রদায়িক শক্তিকে এগিয়ে নিতে জাসদের প্রয়োজন রয়েছে।’

সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুলাহ সিকদার, কেয়ার মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক এম মোয়াজ্জেম হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট আবু সায়ীদ খান, জাসদের সাধারণ সম্পাদক নূরুল আম্বিয়া প্রমুখ। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘জঙ্গিবাদীদের মাথাচাড়া দেয়ার অপরাজনীতির চক্র থেকে বেরিয়ে আসতে গণতান্ত্রিক সংস্কারে হাত দেবার সময় এসেছে। বর্তমান গণতন্ত্রকে আরো অংশগ্রহণমূলক, স্বচ্ছতর এবং সুশাসন নিশ্চিত করতে দলবাজি-দুর্নীতি বন্ধ এবং সংবিধানের ৭০ ধারা সংশোধনের বিষয়গুলো গুরুত্বের দাবি রাখে।’

রোববার দুপুরে বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার কক্ষে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ‘জাতীয় উন্নয়ন ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে সুশাসনের বিকল্প নেই’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বাংলাদেশে গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, আমলাতন্ত্র থেকে ঔপনিবেশিক জটিলতাগুলো দূর করা, প্রশাসনিক পদ্ধতির সংস্কার এবং ঘরের ভেতরের দলবাজি-দখলবাজি বন্ধের বিকল্প নেই।’

তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘গণতন্ত্রের শত্রু জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বিএনপির কোনো অবস্থান নেই। তারা গণতান্ত্রিক সরকারে বিশ্বাসী নয় বরং জঙ্গিবাদের হাত ধরে সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে ও প্রতিপক্ষকে জানে মেরে ফেলার রাজনীতি করে।’

‘জঙ্গিবাদ দমনে ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় রাজনীতিতে জাসদ অপরিহার্য’ উল্লেখ করে ইনু বলেন, ‘সমগ্র প্রগতিশীল ও অসাম্প্রদায়িক শক্তিকে এগিয়ে নিতে জাসদের প্রয়োজন রয়েছে।’

সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুলাহ সিকদার, কেয়ার মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক এম মোয়াজ্জেম হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট আবু সায়ীদ খান, জাসদের সাধারণ সম্পাদক নূরুল আম্বিয়া প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই