মেইন ম্যেনু

৭০০ মানুষ হত্যার দায় র‌্যাবের বিরুদ্ধে

বিভিন্ন সরকারের আমলে ক্রসফায়ারের মিথ্যা গল্প ফেঁদে ৭০০ নাগরিককে বিচার বর্হিভূতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি জানিয়েছে জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলসহ ৪টি সংগঠন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে সংগঠনগুলোর নেতারা এই দাবি করেন।

বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নেওয়া সংগঠনগুলো হচ্ছে জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল, জাতীয় গণফ্রন্ট, জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমোর্চা ও নয়া গণতান্ত্রিক গণমোর্চা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, বর্তমান সরকার জনমত উপেক্ষা করে রাষ্ট্র ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে গত ৫ জানুয়ারি দেশে প্রহসনের নির্বাচন করে। আর এই নির্বাচনে সাম্রাজ্যবাদী ভারত মদদ দিয়েছে। কিন্তু জনগণ ওই নির্বাচন ঠিকই বর্জন করেছে।

সংগঠনগুলো দাবি করে, নারায়ণগঞ্জের ৭ অপহরণ ও খুনের ঘটনায় র‌্যাবের সংশ্লিষ্টতা ও ৬ কোটি টাকার বিনিময়ে হত্যার প্রেক্ষিতে জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে অবিলম্বে র‌্যাব বিলুপ্ত করতে হবে। পাশাপাশি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা প্রধানমন্ত্রী নারায়ণগঞ্জের খুনের ঘটনার দায় এড়াতে পারেন না বলেও নেতারা মতামত ব্যক্ত করেন।

বিক্ষোভ সমাবেশে সংগঠনগুলোর নেতারা র‌্যাবের বিলুপ্তি দাবি করে বলেন, ‘গঠনকাল থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত র‌্যাবের বিচারবহির্ভূত সব হত্যাকাণ্ডের বিচার ও সর্বোচ্চ শাস্তিদানের লক্ষ্যে একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নেতৃত্বে আইনজীবী, সাংবাদিক, শিক্ষক, রাজনীতিক এবং মানবাধিকার কর্মীর সমন্বয়ে গণতদন্ত কমিশন গঠন করতে হবে।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল হাকিম, নয়া গণতান্ত্রিক গণমোর্চার সভাপতি জাফর হোসেন, জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমঞ্চের আহ্বায়ক মাসুদ খান, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সম্পাদক মিনহাজ আহমেদ প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই