মেইন ম্যেনু

২১ আগস্ট হামলার সঙ্গে খালেদা ‘জড়িত’ : হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, ‘২০০৪ সালের ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনার সময় প্রধামন্ত্রী ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তাই তিনি এই গ্রেনেড হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িত। এর দায় তাকেই নিতে হবে।’

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রোববার দুপুরে রাজধানীর ফটো জার্নিলিস্ট অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় একথা বলেন হানিফ। যুব শ্রমিক লীগ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

হানিফ বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে তার ছেলে তারেক রহমান হাওয়া ভবনের বসে মূল পরিকল্পনা করে এ হামলা চালান। হাওয়া ভবনে বসেই তারা দফায় দফায় বৈঠক করেছেন। ওই বৈঠকে তৎকালীন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুফুজ্জামান বাবর, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টুসহ বিএনপির অনেক নেতারাই উপস্থিত ছিলেন। এই তথ্য আমার না। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার আসামিদের স্বীকারোক্তি।’

তিনি আরও বলেন, ‘‍বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে বাঁচানোর চেষ্টা করেছিলেন জিয়াউর রহমান। বিভিন্ন দূতাবাসে তাদের চাকরি দিয়েছিলেন। তারপরেও তাদের বাঁচানো যায়নি। ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলাকারীদেরও বাঁচানো যাবে না। এদের বিচার হবেই। জাতি আজ এই মামলার রায়ের অপেক্ষায় রয়েছে।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ করে হানিফ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে আদালতকে প্রভাবিত করার কোনো সুযোগ নেই। মির্জা ফখরুল সাহেব, আপনি শাক দিয়ে মাছ ঢাকবেন না। এতে কোনো লাভ হবে না। ২১শে আগস্টের ঘটনার সঙ্গে আপনার নেত্রী ও তার পুত্র তারেক রহমান জড়িত। তাদের বিচারের দিন আর বেশি দূরে নেই।’

‘জিয়া পরিবারের হাত বাঙ্গালীর রক্তে রঞ্জিত। এই শক্তি অশুভ শক্তি। এই শক্তি থেকে দেশের মানুষকে রক্ষা করতে হবে। এজন্য অসাম্প্রদিক চেতায় বিশ্বাসী সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে’- এসব কথাও বলেন হানিফ।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আব্দুল হালিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- আ. লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবীবুর রহমান শিরাজ, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি শুক্কুর মহমুদ, কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু প্রমুখ।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই