মেইন ম্যেনু

১৫ আগস্টের নামে চাঁদাবাজি করা হয়েছে : খালেদা জিয়া

আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী যে প্রক্রিয়ায় পালন করেছে তার কড়া সমালোচনা করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

শনিবার রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়া এ সমালোচনা করেন।

তিনি বলেন, ‘দেশজুড়ে ১৫ আগস্টের নামে দেশজুড়ে যেভাবে চাঁদাবাজি করা হয়েছে তাতে দলের লোকেরা (আওয়ামী লীগ) তাদের নেতাকে অসম্মান করেছে, ছোট করেছে।’

অবৈধ সরকার যে আইন তৈরি করছে তা অবৈধ উল্লেখ করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘সম্প্রচার নীতিমালা বাস্তবায়ন হলে আমরা যে কথা বলি তাও ঠিকমত প্রচার হবে না। জনগণের বাক স্বাধীনতা বলে কিছুই থাকবে না।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘বিএনপি কখনো সাম্প্রদায়িক ছিলো না। ভবিষ্যতেও সাম্প্রদায়িক হবে না। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিলো তখন জামায়াতের নেতারাও পূজা মণ্ডপে গিয়েছে। সবার মধ্যেই সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি ছিলো।’

আওয়ামী লীগের দুর্নীতি তুলে ধরতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘দেশের যে অবস্থা তাতে কবরে যেতে গেলেও টাকা দিতে হবে, শ্মশানে পোড়াতে গেলেও টাকা লাগবে। অযোগ্য লোকদের প্রশাসনের বিভিন্ন জায়গায় বসানো হচ্ছে, ১০০০ কর্মকর্তাকে ওএসডি করে রাখা হয়েছে, বিচার বিভাগকেও দলীয়করণ করা হচ্ছে।’

এসময় তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের দুর্নীতি, অনিয়ম, চাঁদাবাজি, দখলদারি বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ করার হওয়ার আহ্বান জানান।






মন্তব্য চালু নেই