মেইন ম্যেনু

১২ বছর সাধনায় ‘বৃক্ষমানব’ উপাধি

দীর্ঘ ১২ বছর ধরে সাধনা করে ‘বৃক্ষমানব’ উপাধি পেয়েছেন ময়মনসিংহের দীপক চন্দ্র দাস। জলবায়ু পরিবর্তন, পরিবেশ বিপর্যয়, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলাসহ পরিবেশ সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করে তিনি এ উপাধি লাভ করেন।
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী বয়ড়া ইউনিয়নের ছেলে দীপক। দারিদ্রতার মধ্য দিয়ে বড় হলেও ছোটবেলা থেকেই গাছ লাগানো এবং পরিচর্যার প্রতি ছিল তার অধিক আগ্রহ। বাড়ির আশেপাশে যেকোনো জায়গায়ই গাছ লাগাতেন।
বিশ্বের জলবায়ু প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছ- বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় এসব তথ্য দেখে নিজেকে ধরে রাখতে পারতেন না দীপক। তাই ২০০২ সালে পরিবেশ দূষণরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে জাতীয় দিবসসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে হাজির হতেন বিভিন্ন স্লোগান নিয়ে। হাতে, পায়ে, মুখে এমনকি মাথায়ও জলবায়ু পরিবর্তন রোধের বিভিন্ন স্লোগান লিখে সবার সামনে হাজির হতেন তিনি।
গত ১৪ আগস্ট শুরু হওয়া ময়মনসিংহ বন বিভাগের আয়োজনে বৃক্ষরোপন অভিযান ও বৃক্ষ মেলায় বিভিন্ন বৃক্ষের পাতায় স্লোগান নিয়ে দীপক হাজির হন সবার সামনে। এ আয়োজনে দীপককে ময়মনসিংহ জেলার ‘বৃক্ষমানব’ উপাধি দেয় জেলা প্রশাসন। দারিদ্রের মধ্যেও সাধনার স্বীকৃতি দিয়ে করে দীপককে ক্রেস্ট এবং সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।
জলবায়ু পরিবর্তন রোধে আন্দোলন সম্পর্কে দীপক বলেন, ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের পরিবেশ বিপর্যয় সম্পর্কে সচেতন করতে হবে। তাদের বৃক্ষরোপনে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। তবেই দেশের মরুকরণ রোধ করা যাবে।
তিনি বলেন, আমার মতো সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। তবে কোনো আর্থিক সহায়তা পেলে এ আন্দোলনে আরো সফল হতে পারবো।






মন্তব্য চালু নেই