মেইন ম্যেনু

হাতিরঝিলে সহজেই পাওয়া যাবে মাহিকে

হাতিরঝিলে গেলে, খুব সহজে পাওয়া যাবে মাহিকে। পুলিশ যদি তাকে গ্রেফতার করতে চায় তাহলে সেখানে গেলেই মিলবে এ চলচ্চিত্রাভিনেত্রেীকে। সেখানে ‘বিগ ব্রাদার’ সিনেমার পুরো ইউনিটের সঙ্গে আছেন তিনি।

রোববার সকাল থেকেই সিনেমাটির শুটিং চলছে সেখানে। কয়েকটি অললাইন পত্রিকায় ঢাকাই সিনেমারেএ সময়ের আলোচিত নায়িকা মাহিয়া মাহিকে পলাতখ উল্লেখ করে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তাকে কটাক্ষ করে রাইজিংবিডির মাধ্যমে এভাবেই তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তিনি।

চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল আজীজ ও সিইও শীষ মনোয়ারকে গ্রেফতার করা হয়েছে গতকাল শনিবার সকালে। প্রতিষ্ঠানটির হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আবু বকর সবুজ গত নয় দিন ধরে নিখোঁজ। তাকে অপহরণ করা হয়েছে এমন দাবি করে তার পরিবার ওই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। তারই প্রেক্ষিতে এ দুই শীর্ষ চলচ্চিত্র প্রযোজককে গ্রেফতার করা হয়।

এ ঘটনায় পর কিছু গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ করে, ‘মামলার সূত্র ধরে পুলিশ আরো কয়েকজনকে খুঁজছে।’ পুলিশের সেই পলাতকদের তালিকায় আছেন ঢালিউডের শীর্ষ নায়িকা মাহিয়া মাহির নামও। সেই খবরগুলোতে আরো বলা হয়, মাহি এখন আত্মগোপনে আছেন এবং শুটিং এর অজুহাতে দেশ ছাড়ারও পায়তারা করছেন।

এ প্রসঙ্গে রাইজিংবিডি যোগাযোগ করে মাহিয়া মাহির সঙ্গে। বেশ কয়েকবার চেষ্টার পর মোবাইলের মাধ্যমে রাইজিংবিডির সঙ্গে কথা বলেন মাহি। তিনি জানিয়েছেন, বিগ ব্রাদার চলচ্চিত্রের শুটিং এর কাজে তিনি এখন হাতিরঝিলে আছেন।

শুটিং-এ ব্যস্ত থাকায় সময় মতো সবার ফোন ধরতে পারছেন না বলেও জানা এই হার্টথ্রব অভিনেত্রী। তিনি বলেন, ‘আমি শুটিং নিয়ে খুব ব্যস্ত। তাই কেউ ফোন দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কল রিসিভ করতে পারছি না। আমাকে ফোনে না পেয়ে কেউ কেউ অতিরঞ্জিত সংবাদ প্রকাশ করছেন।’

আত্মগোপনের অভিযোগ অস্বীকার করে মাহি বলেন, ‘আমি পালাবো কেন? আমি যদি পলাতক হই তাহলে আমার সঙ্গে বিগ ব্রাদার সিনেমার পুরো ইউনিট-ই পলাতক। তাহলে, আমি কি সিনেমার ইউনিট নিয়ে আত্মগোপনে আছি?’

এ কথা বলে ‘শুট টেক’ করার জন্য ‍দুই মিনিট সময় চেয়ে নেন মাহি। ‘শুট’ শেষ করে মাহি নিজেই এ প্রতিবেদকের মোবাইলে ফোন করে তার বক্তব্য জানান।
গণমাধ্যমের সংবাদ প্রকাশ প্রসঙ্গে মাহির দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মাহি বলেন, ‘এ ধরণের সংবাদ কেন ছড়ানো হচ্ছে আমি জানি না। আমার বক্তব্য ছাড়া সংবাদ ছড়ানোটা সাংবাদিকতার মধ্যে পড়ে কিনা সেটাও আমি জানি না। শুধু বলবো এটা একতরফা সংবাদ হয়ে যাচ্ছে।’

এ প্রসঙ্গে মাহি আরো বলেন, ‘সিনেমায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে আমার একটা গ্রহণযোগ্যতা তৈরি হয়েছে। এখন আমার কিছু দর্শক তৈরি হয়েছে, যারা আমাকে ভালোবাসেন। আমার নামে এরকম নিউজ হলে সেটা হয়তো পাঠক খুবই আগ্রহ নিয়ে পড়বে। আমার মনে হয় সংবাদের পাঠক চাহিদা বাড়ানোর জন্যই গুজব ছড়ানো হয়েছে যে পুলিশ আমাকে খুঁজছে।

মাহি দাবী করেন, ‘পুলিশ যদি আমাকে খুঁজবে তাহলে হাতিরঝিলে আসলেই তো হয়। আমি তো আত্মগোপনে নেই। হাতিরঝিলে আসলে খুব সহজেই পাওয়া যাবে আমাকে।

জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ভালোবাসার রঙ সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডের চলচ্চিত্রে প্রবেশ করেন মাহিয়া মাহি। এরপর এ প্রতিষ্ঠানটির বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন এ অভিনেত্রী। হৃদয়ছোঁয়া অভিনয়ের মাধ্যমে হয়ে উঠেছেন ঢালিউডের নাম্বার ওয়ান নায়িকা।

জাজের দুই  প্রযোজক গ্রেফতার প্রসঙ্গে মাহির বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘জাজ-এর মাধ্যমে আমার সিনেমায় ক্যারিয়ার শুরু হয়েছে। এরপর তো আমি অন্য প্রযোজনা সংস্থা থেকেও বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করেছি। জাজের সঙ্গে আমার সম্পর্কটা শিল্পী আর প্রযোজনা সংস্থার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়; জাজ আমার পরিবারের মতো।’

 

মাহির এ বক্তব্যের সূত্র ধরে জানতে চাওয়া হয়, ‘জাজ তো আপনার পরিবারের মতো? পরিবারের একজন সদস্য নয় দিন ধরে নিখোঁজ। এ বিষয়ে আপনার বক্তব্য কি? এ বিষয়ে মাহি বলেন, ‘অবশ্যই আমরা সবাই মর্মাহত। জাজের সবাই সবুজকে খুঁজছে। পুলিশও বিষয়টি তদন্ত করছে। আমরা সবাই সবুজকে খুঁজে পেতে চাই।’

 

এছাড়া সবার বক্তব্য নিয়ে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের জন্য সাংবাদিকদের অনুরোধ করেন মাহিয়া মাহি। মাহি বলেন, ‘সাংবাদিকরা আমাদেরকে মানুষের কাছে তুলে ধরেন। সাংবাদিকদের লেখার সূত্র ধরেই মানুষ আমাদেরকে ভালোবাসেন। তাই সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ করবো সঠিক তথ্য সংবাদ প্রকাশ করুন।’

 

ভালোবাসার রঙ, পোড়ামন, ভালোবাসা আজকাল, অগ্নি প্রভৃতি চলচ্চিত্রে অভিনয়েরমাধ্যমে দারুণ প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি। মাহি এখন দেশা: দ্য লিডার, বিগ ব্রাদার’সহ বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত আছেন।

– See more at: http://www.risingbd.com/detailsnews.php?nssl=d07325dbe02300c295f7f9f67cc6ee26#sthash.J7qOl1rs.dpuf






মন্তব্য চালু নেই