মেইন ম্যেনু

হত্যায় র‌্যাবের কেউ জড়িত থাকলে ছাড় পাবে না: শিল্পমন্ত্রী আমু

নারায়ণগঞ্জে কাউন্সিলর নজরুল ইসলামসহ সাতজনকে অপহরণের পর হত্যার পেছনে র‌্যাবের কেউ জড়িত থাকলে তাদেরকে ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।
সোমবার বিকালে সচিবালয়ে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে একথা বলেন কমিটির আহ্বায়ক আমু।
তিনি বলেন, “দৃঢ়তার সঙ্গে বলতে চাই, যারা যারা এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে। এখানে কোনো দিকে তাকানো হবে না।”
গত ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম ও আইনজীবী চন্দন কুমার সরকারসহ সাতজনকে অপহরণ করা হয়। তিন দিন পর শীতলক্ষ্যা নদীতে তাদের লাশ পাওয়া যায়।
এ অপহরণ ও হত্যার জন্য র‌্যাবকে দায়ী করেছেন কাউন্সিলর নজরুলের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম।
রোববার নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আরেক কাউন্সিলর নূর হোসেন অর্থ দিয়ে র‌্যাবের মাধ্যমে তার জামাতাকে হত্যা করিয়েছেন।

সোমবারের বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় র‌্যাবের বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগের বিষয়ে মন্ত্রীর কাছে জানতে সাংবাদিকরা।
জবাবে আমু বলেন, “একটি সংস্থা দুই-একজনের কারণে ম্লান হতে পারে না।”
র‌্যাবের অনেক কৃতিত্ব রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “এখানে অনেকে কাজ করছেন। অনেক ভাল ভাল অফিসার রয়েছে।
“এখানে অনেকে অনেক অভিযোগ করতে পারে। আমরা সব অভিযোগ আমলে নিয়ে তদন্ত করছি।”
হত্যায় র‌্যাব সদস্যদের জড়িত থাকার অভিযোগ তদন্তে একটি কমিটি গঠন করার কথাও জানান শিল্পমন্ত্রী।
বৈঠকে মাদকদ্রব্য অনুপ্রবেশ ও অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণের বিষয়েও আলোচনা হয় বলে জানান তিনি।
আওয়ামী লীগের এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, বিএনপির অরাজকতা ও অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির পায়তারা করছে।
“নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করে তারা পারেনি। তাই এখন প্রতিহিংসা ও প্রতিশোধমূলক কাজে লিপ্ত তারা।”
শিল্পমন্ত্রীর সভাপতিত্বে বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী, স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এবং শ্রম ও কর্মসংস্থা প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়া পুলিশের মহাপরিদর্শক হাসান মাহমুদ খন্দকার ও র‌্যাবের প্রধান মোখলেছুর রহমানসহ বিভিন্ন সংস্থার প্রধানরাও উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই