মেইন ম্যেনু

হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা শুরু, মাস্ক আবশ্যক

এ বছরের হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকাদান কর্মসূচি শুরু করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি চলবে হজে যাওয়া পর্যন্ত। এ সময়ের মধ্যে প্রত্যেক হজযাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর ম্যানিনজাইটিস ও ইনফ্লুয়েঞ্জার টিকা নিয়ে স্বাস্থ্যসনদ সংগ্রহ করতে হবে।

এ ছাড়া সৌদি আরবে মার্স (মিডল ইস্ট রেসপিরেটরি সিনড্রম) ভাইরাসের কারণে এ বছর প্রত্যেক হজযাত্রীর জন্য মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. দ্বীন মোহাম্মদ নুরুল হক এসব তথ্য জানিয়েছেন।

অধিদপ্তর থেকে জানা গেছে, ঢাকা জেলা ও মহানগরীর হজযাত্রীরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, মুগদাপাড়ার ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল ও বাংলাদেশ সচিবালয় ক্লিনিকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ও টিকা নিয়ে স্বাস্থ্যসনদ সংগ্রহ করতে পারবেন।

একই সঙ্গে অন্যান্য সকল জেলার হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা নিয়ে স্বাস্থ্যসনদ সংগ্রহ করতে হবে বিভাগীয় শহরের সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও জেলা শহরে সংশ্লিষ্ট সিভিল সার্জনের কার্যালয় থেকে।

ইতোমধ্যেই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে হাবকে (হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (হজ) মো. জাহাঙ্গীর আলম।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আরও জানায়, সৌদি আরবে মার্স (মিডল ইস্ট রেসপিরেটরি সিনড্রম) ভাইরাসের কারণে গত ১৮ জুন দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ধর্ম মন্ত্রণালয়কে একটি চিঠি পাঠায়।

চিঠিতে মার্স ভাইরাসের ব্যাপারে সর্তকতা অবলম্বন করে প্রয়োজনীয় প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। এ জন্য এবার হজযাত্রীদের জন্য মাস্ক পরা ও টিকা নেয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

সৌদি আরবে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৪ অক্টোবর এ বছরের পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে। সৌদি আরব যাওয়ার ফ্লাইট শুরু হচ্ছে আগামী ২৭ আগস্ট। শেষ হবে ২৮ সেপ্টেম্বর। হজ শেষে ফিরতি ফ্লাইট ৮ অক্টোবর শুরু হয়ে শেষ হবে ৮ নভেম্বর।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে এবার ৯৮ হাজার ৭০৫ জন হজে যাচ্ছেন। এরমধ্যে বেসরকারিভাবে হজে যাচ্ছেন ৯৭ হাজার ২০৫ ও সরকারিভাবে ১ হাজার ৫০০ জন।






মন্তব্য চালু নেই