মেইন ম্যেনু

স্বামীর যৌনাঙ্গ কেটে দিলেন স্ত্রী! কারণটা জানলে চমকে উঠবেন

কার্যত প্রত্যেকদিন স্বামীর কোনও না কোনও মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়! আর তা নিয়ে সংসারে কার্যত প্রত্যেকদিনই ঝগড়া-অশান্তি। স্বামীর মহিলা প্রীতি এবং প্রত্যেকদিনের এই অশান্তিতে রীতিমত তিতিবিরক্ত হয়ে উঠেছিলেন স্ত্রী। আর তা থেকে রেহাই পেতে স্বামীর যৌনাঙ্গ কেটে দিলেন স্ত্রী। ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ফিলিপিন্সের ইলোইলো শহরে। ইতিমধ্যে অভিযুক্ত মহিলাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার হলেও এই ঘটনায় মোটেই অনুতপ্ত নন অভিযুক্ত স্ত্রী। তাঁর মতে, প্রত্যেকদিনের এই ঝামেলা থেকে একেবারেই মুক্তি পেতে এমন ঘটনা কোনও ভুল নেই।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আহত ওই ব্যক্তি প্রত্যেকদিন বন্ধুদেরকে নিয়ে বিভিন্ন বারে যান। গভীর রাত পর্যন্ত চলে মদ্যপান। মহিলাদের সঙ্গেও কিছুটা তৈরি করেন রসালো সম্পর্ক! বৃহস্পতিবারও একই ঘটনা ঘটিয়ে ছিলেন। তবে বাড়িতে না এসে এক বন্ধু বাড়িতে চলে যান রাতে। তাতে আরও অশান্তি বাড়ে। কার্যত নিজেকে আর সামলাতে না পেরে ছুরি হাতে স্বামীর ওই বন্ধুর বাড়িতে চলে যান স্ত্রী। কিছু বুঝে ওঠার আগে সেখানে গিয়ে স্বামীর যৌনাঙ্গে দেন এক কোপ। রক্তাক্ত অবস্থায় স্বামীকে হাসপাতালে নিয়ে যান তাঁর বন্ধুরা। অস্ত্রোপচার করা হলেও, তাঁর যৌনাঙ্গ আর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরবে কি না, সে বিষয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে পারছেন না চিকিৎসকরা।

অভিযুক্ত স্ত্রী জানিয়েছেন, স্বামীর একাধিক নারীসঙ্গের ওঠাবসা। আর সেই কারণেই এই শাস্তি দিয়েছি। ওর এই আচরণে আমি হাঁফিয়ে উঠেছিলাম। এবার শান্তি!






মন্তব্য চালু নেই