মেইন ম্যেনু

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হচ্ছেন টুকু!

হঠাৎ করে দেশব্যাপী গুম-খুনসহ অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড বেড়ে যাওয়ায় নিজের হাতে থাকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পূর্ণমন্ত্রী নিয়োগ দিতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর এ পদে আসীন হচ্ছেন নির্বাচনকালীন সরকার ও মহাজোট সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু এমপি। সরকারের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে বিষয়টি জানা গেছে।
সরকারের শুরু থেকেই অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিজের হাতেই রেখেছেন। মন্ত্রিসভায় নতুন ঢাকার সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান কামালকে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু হঠাৎ করে নারায়ণগঞ্জে অপহরণ পরবর্তী সাত খুনসহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব একজন পূর্ণমন্ত্রীর হাতেই দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
সূত্র জানায়, চলতি মাসের প্রথমভাগে মন্ত্রিসভার রদবদল ও সম্প্রসারণ করা হতে পারে। তখন প্রতিমন্ত্রী দিয়ে চালানো সরকারের গুরুত্বপূর্ণ এ মন্ত্রণালয়ে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন একজন পূর্ণমন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হবে। আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণসহ সামনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু মাথায় রেখে সরকারের নীতি নির্ধারণী মহল এ ধরণের চিন্তা করছে।
ওই সূত্রটি জানায়, শুধু অপহরণ গুম ও হত্যার কারণেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পূর্ণমন্ত্রী নিয়োগ দেয়ার চিন্তা করছে না সরকার। সামনে জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর রায়সহ সরকারবিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের সময় জানমালে নিরাপত্তা বিধানসহ আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণ, আইন-শৃংখলা বাহিনীর সঙ্গে চলমান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দূরত্ব কমানোসহ নানা গুরুত্বপূর্ণ কারণে এই মন্ত্রণালয়ে পূর্ণমন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।
এরইমধ্যে আপিল বিভাগে সাঈদীর রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষমাণ রয়েছে। এ রায় নিয়ে জামায়াতের পক্ষ থেকে কড়া হুঁশিয়ারিও রয়েছে। আবার হঠাৎ করে নিষ্ক্রিয় জঙ্গি সংগঠনগুলো মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। আর অন্যদিকে পুলিশ সদর দপ্তর ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের মধ্যে দূরত্ব ও মনমালিন্য দেখা দিয়েছে। এসব বিষয়ের সুরাহা না হলে প্রশাসন নিয়ন্ত্রণ করা কষ্টকর হয়ে পড়বে সরকারের। বিষয়গুলো মাথায় রেখে সরকার এ মন্ত্রণালয়ে পূর্ণমন্ত্রী নিয়োগ দিতে যাচ্ছে।
সূত্রটি জানায়, গত নির্বাচনকালীন সরকারের সময় বিরোধী দলের কঠোর আন্দোলনের পর শামসুল হক টুকু অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে প্রধানমন্ত্রীর নজর কেড়েছিলেন। পরে কাদের মোল্লার রায় কার্যকরের বিষয়টি আগেই গণমাধ্যমে জানিয়ে দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর বিরাগভাজন হন তিনি। ফলে পরবর্তী মন্ত্রিসভায় তার স্থান হয়নি। তবে দেরিতে হলেও গুরুত্বপূর্ণ এই মন্ত্রণালয়ে এবার পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে তিনি দায়িত্ব পেতে যাচ্ছেন বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে।
এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর নিজের কাঁধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব থাকায় দেশব্যাপী সংঘটিত গুম ও খুনের ঘটনায় ব্যর্থতার দায় সরাসরি তার ওপরই দিচ্ছে বিএনপি। বৃহস্পতিবার রাজধানীতে এক সমাবেশে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব গুম-খুনের দায় এড়াতে পারেন না।’
বিএনপি ছাড়াও দেশের সুশীল সমাজ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এমনকি সরকার নিয়ন্ত্রিত বিরোধী দল জাপার চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদও নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনায় সরকারের কড়া সমালোচনা করেছেন।
অন্যদিকে সরকার গঠনের পর স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রিসভার দু’জন নবীণ সদস্যকে দায়িত্ব দিয়ে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিজের হাতে রেখেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। তবে পরে নির্বাচনকালীন সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এইচএম মাহমুদ আলীর কাছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব ছেড়ে দেন প্রধানমন্ত্রী।
তখন অবশ্য গুঞ্জন উঠেছিল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বও যাচ্ছে এই মন্ত্রণালয়ের সাবেক কোনো মন্ত্রীর হাতে। ওই সময় সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর (অব.) রফিকুল ইসলামের নাম বেশ জোরেশোরে উচ্চারিত হলেও পরবর্তী সময়ে তাকে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি করা হয়। আর সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দিন খান আলমগীরকেও একটি সংসদীয় কমিটির সভাপতি করা হয়। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংসদীয় কমিটির সদস্য করা হয় সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকুকে। সাধারণত মন্ত্রিসভার সদস্যদের ওই সংসদীয় কমিটির সদস্যই করা হয়।
এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত বাংলামেইলকে বলেন, ‘আপনি কার কাছে শুনলেন, আমি তো জানি না। এটা সরকারের মন্ত্রীরাই বলতে পারবেন। তাদেরকে ফোন দেন।’
আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাবেক মন্ত্রী হাছান মাহমুদ বাংলামেইলকে বলেন, ‘হলেও হতে পারেন, গত মেয়াদে তিনি (টুকু) তার দায়িত্ব ভালোভাবেই পালন করেছেন। তবে এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না।’






মন্তব্য চালু নেই