মেইন ম্যেনু

সুস্বাস্থ্যের চাবিকাঠি মিষ্টি!

মাছ-মাংস হোক, না হোক। খাওয়া শেষে মিষ্টিমুখ অবশ্যই করতে হবে। এটা অনেক পরিবারে ঐতিহ্য হিসেবে গড়ে উঠেছে। শুধু রসনাই নয়, সুস্বাস্থ্যের চাবিও মিষ্টি।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক সমীক্ষা রিপোর্টে বলা হয়েছে, প্রতিদিন খাওয়া শেষে একটু মিষ্টি খেলে কমবে ব্লাড প্রেশার। পাশাপাশি কার্ডিওভাসকুলার রোগের সম্ভাবনা কমে। মিষ্টি খাবার শরীরের ভিতর অ্যাসিড ক্ষরণের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। ফলে, হজম ভাল হয়। খাওয়া শেষে মিষ্টি শরীরে সেরিটোনিন নামের হরমোনের ক্ষরণ হয়। ফলে, সুখ ও আনন্দের অনুভূতি তৈরি হয়। শরীরের সার্বিক সুস্থতার জন্য যা জরুরি। ভারী খাবার খাওয়ার পর শরীরে ব্লাড প্রেশার অত্যন্ত কমে যায়। ফলে, কখনও কখনও অস্বস্তি তৈরি হয়। কিন্তু মিষ্টি খেলে শরীরে রক্তচাপের ভারসাম্য তৈরি হয়। ফলে, কোনো অসুস্থতা বা অস্বস্তির সম্ভাবনা থাকে না। ডার্ক চকোলেটের মতো বেশ কিছু ডেজার্টে থাকে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং কোকো। যা স্ট্রোকের সম্ভাবনা কমায়। ওজন থাকে নিয়ন্ত্রণে।






মন্তব্য চালু নেই