মেইন ম্যেনু

‘সিলেটে স্কুলের সিঁড়ির নিচে পাওয়া বস্তুটি বোমা নয়’

সিলেট নগরীর বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্কলার্সহোম স্কুল অ্যান্ড কলেজ ক্যাম্পাসে বোমাসদৃশ বস্তুটি পরীক্ষা ও উদ্ধারের পর জানানো হয়েছে এটি বোমা নয়। কাগজ ও টেপ দিয়ে বানানো বোমার মতো বস্তু। যার ভেতরে সাদা কাগজ ও ক্যাবল ছিলো।

স্কুলের এক শিক্ষার্থী মজার ছলেই এই জিনিসটি বানিয়েছিলো বলে র‌্যাবের বরাত দিয়ে স্কুলের প্রিন্সিপাল বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব) জুবায়ের সিদ্দিকী এসব তথ্য জানান ।

বুধবার সকাল ৯টা থেকে বোমাসদৃশ বস্তুটি উদ্ধারে কাজ শুরু করে বম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা। প্রায় ঘন্টাখানেক পরে সেটি বাইরে নিয়ে আনা হলে দেখা যায় সেটি বোমা নয়।

প্রতিষ্ঠানের প্রিন্সিপাল বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব) জুবায়ের সিদ্দিকী বলেন, প্রতিষ্ঠানেরই দশম শ্রেণীর ছাত্র এবাদুর রহমান এমনটি করেছে এবং বিষয়টি সে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে স্বীকারও করেছে।

‘বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মিডিয়ার বোমার ছবি দেখে কাগজপত্র টেপ দিয়ে মুড়ে বোমাসদৃশ বস্তুটি বানিয়েছিলো সে। তার ধারণা ছিলো, এতে মানুষ উদ্বিগ্ন হবে এবং সে মজা পাবে।’

তবে এর সঙ্গে রাজনৈতিক বা অন্য কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামীকাল থেকে আবার যথারীতি ক্লাস হবে, এতে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নাই।

মঙ্গলবার সকালে সিলেট নগরীর বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্কলার্সহোম ক্যাম্পাসের সিঁড়ির নিচে বোমা দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন তারা।

ক্যাবল ও সার্কিট রয়েছে এমন তথ্যে র‌্যাব-৯ এর বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানায় এটি শক্তিশালী বোমা হতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই