মেইন ম্যেনু

সাবধান! চায়ের সঙ্গে আপনার শরীরে প্রবেশ করছে ভয়ানক কীটনাশক

গরম ধুমায়িত চায়ের কাপে যদি আপনি জীবনের শান্তি খুঁজে পান তাহলে সেই চা পান করার আগে এবার সাবধান হন। চা-প্রেমীদের জন্য যথার্থ অর্থেই দুঃসংবাদ বয়ে আনলেন গ্রিনপিস ইন্ডিয়া নামের একটি এনজিও।

ভারতের চা শিল্পের বর্তমান অবস্থার ভইয়াবহ এক চিত্র উঠে এল গ্রিনপিস প্রকাশিত একটি সমীক্ষা রিপোর্টে।

২০১৩ সালের জুন থেকে ২০১৪-এর মে অবধি ভারতের ৮টি প্রখ্যাত চা বিক্রেতা কোম্পানির ৪৯টি বিভিন্ন চায়ের প্যাকেট সংগ্রহ করে পরীক্ষা চালিয়েছে গ্রিনপিসের একটি দল। এই কোম্পানিগুলি শুধুমাত্র ভারতের চা বাজারে রাজত্ব করে তাই নয়, রাশিয়া, ব্রিটেন, আমেরিকা, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী ও ইরানে চা রফতানিও করে।

ওই এনজিও-টির প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী

৪৯টি স্যাম্পেলের ৪৬টিতে অন্তত ১টি করে কীটনাশকের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

২৯টিতে বিভিন্ন বিষাক্ত কীটনাশকের মিশ্রণ পাওয়া গেছে।

বিভিন্ন ব্র্যান্ডের চা গুলিতে মোট ৩৪ রকমের কীটনাশকের উপস্থিতি খুঁজে পাওয়া গেছে।

স্যাম্পেলগুলির ৬৭% ক্ষেত্রে ডিডিটি-এর উপস্থিতি পরিলক্ষিত হয়েছে। এই ভয়ানক কীটনাশকটির ব্যবহার ১৯৮৯ সাল থেকে ভারতে নিষিদ্ধ।






মন্তব্য চালু নেই