মেইন ম্যেনু

৬ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের

সাতক্ষীরায় ধর্ষনের পর স্কুল ছাত্রী হত্যা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানসহ ২জন আটক

সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া এলাকায় একটি বাগান বাড়িতে স্কুল ছাত্রী এক কিশোরীকে জোর পূর্বক আটকে রেখে ধর্ষন, পাশবিক নির্যাতন ও হত্যার পর তড়িঘড়ি করে লাশ দাফন প্রচেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দেবহাটা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা পারভিনসহ ২মহিলাকে পুলিশ আটক করেছে। দেবহাটা থানায় দায়ের হয়েছে একটি হত্যা মামলা। মামলায় দেবহাটা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা বেগম, কুলিয়ার প্রভাবশালী ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক আসাদুল হক, তার ছেলে মূল ঘাতক দেলোয়ার হোসেন শাওনসহ ৬ জনকে এই মামলায় আসামী করা হয়েছে। দেবহাটা থানায় উপ-পরিদর্শক ইউনুছ আলী বাদী হয়ে শনিবার রাতে মামলাটি দায়ের করেন।
এদিকে, মর্মান্তিক এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় আটক দেবহাটা উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা বেগম ও তার ছেলের বউ আফরোজা সুলতানাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।
দেবহাটা থানার ওসি জালাল উদ্দীন জানান, দায়েরকৃত মামলার আসামীরা হলেন ধর্ষক দুলাভাই দেলোয়ার হোসেন শাওন, তার মা আফরোজা পারভীন, স্ত্রী আফরোজা সুলতানা, ধর্ষকের পিতা জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক কুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুল হক। এছাড়া এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে নিহতের পিতা সাতীরা সদর উপজেলার রইচপুর গ্রামের আব্দুল মজিদ ও মা নাজমা খাতুন তড়িঘড়ি করে দাফন করার চেষ্টা করার অভিযোগে তাদেরকেও আসামী করা হয়েছে বলে ওসি জানান।
উলেখ্য, সাতীরা সদর উপজেলার রইচপুর গ্রামের আবদুল মজিদের মেয়ে এসএসসি পরীার্থী কিশোরীকে তার বোনজামাই কুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুল হকের ছেলে একাধিক মামলার আসামী দেলোয়ার হোসেন শাওন ও তার দুই বন্ধু জোরপূর্বক চেয়ারম্যান আসাদুল হকের মালিকানাধীন বাগান বাড়িতে নিয়ে আটকে রাখে এবং পালাক্রমে ধর্ষন করে। গত শ্র“ক্রবার দুপুরে ওই কিশোরী মারাত্বক অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নেয়ার পথে মেয়েটি মারা যায়। এ ঘটনার পর ঘাতক শাওন, তার মা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা বেগম, পিতা চেয়ারম্যান আসাদুল হক তড়িঘড়ি করে নিহতের লাশ দাফনের চেষ্টা করে। আর এ কাজে তাদেরকে সহযোগিতা করে নিহতের পিতা আবদুল মজিদ ও মা নাজমা খাতুন। পরে পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে এবং ঘাতক শাওনের মা আফরোজা বেগম ও স্ত্রী আফরোজা সুলতানাকে পুলিশ গ্রেফতার করে।






মন্তব্য চালু নেই