মেইন ম্যেনু

রক্তমাখা রাম দা, লোহার রড ও হরিণের চামড়া উদ্ধার

সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় গ্রেফতার ৩

সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সুমনকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় তিন যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যার চেষ্টায় ব্যবহৃত দুটি রক্তমাখা রাম দা, চারটি লোহার রড ও একটি হরিণের চামড়া। রোববার সকালে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার তিন যবুক হলেন, সাতক্ষীরা শহরের মুনজিতপুরের এবাদুল ইসলামের ছেলে আবুল কালাম (২০), একই গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে ছাকিব হোসেন (১৭) ও শহরের কাছারিপাড়ার সৈয়দ হেলালের ছেলে ফাহিম হোসেন (২০)। এ ঘটনায় সুমনের বাবা রফিকুল ইসলাম মোড়ল বাদী হয়ে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাইদুর রহমান অপুকে প্রধান আসামি করে ১৯ জনের নামে সাতক্ষীরা সদর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে, রোববার সকালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আনোয়ার হোসেন সুমনকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আবুল কাশেম জানান, ছাত্রলীগ নেতা সুমনকে হত্যা প্রচেষ্টার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া মামলার প্রধান আসামি সাইদুর রহমান অপুর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে না পেলেও হত্যার চেষ্টায় ব্যবহৃত দুটি রক্তমাখা রাম দা, চারটি লোহার রড ও একটি হরিণের চামড়া উদ্ধার হয়েছে। উল্লেখ্য, শনিবার রাত ৯টার দিকে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের পার্শ্ববর্তী শহীদুলের মোড়ে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের বোটানি বিভাগের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সুমনের ওপর সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাঈদুর রহমান অপুর নেতৃত্বে ফাহিম, মহসিন, কালাম, ফারুক, শহীদুল, জুবায়ের, রবিন ও মজিদ শেখসহ ১৫/১৬ জন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এ সময় তাকে মৃত ভেবে ফেলে রেখে গেলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। রাতেই তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও রোববার সকালে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই