মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরার কলারোয়া প্রেসক্লাবের জরুরী সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

সাতক্ষীরার কলারোয়া প্রেসক্লাবের এক জরুরী সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টায় প্রেসক্লাবের অস্থায়ী কার্যালয়ে ওই সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম রহমান। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক এমএ কালাম, সা. সম্পাদক রাশেদুল হাসান কামরুল, সাবেক সা. সম্পাদক শেখ মোসলেম আহম্মেদ ও শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক হাফিজুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক প্রভাষক আরিফ মাহমুদ, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক আব্দুর রহমান, নির্বাহী সদস্য শিক্ষক দীপক শেঠ, আনিছুর রহমান, সদস্য আতাউর রহমান প্রমুখ সাংবাদিকবৃন্দ। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ঔদ্ধর্তপূর্ণ আচরণ ও গঠণতন্ত্র পরিপন্থি কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে কলারোয়া প্রেসক্লাবের সহ.সভাপতি কেএম আনিছুর রহমানকে প্রেসক্লাব থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। প্রেসক্লাবের সা.সম্পাদক সহ কয়েকজন সাংবাদিকদের সাথে ঔদ্ধর্তপূর্ণ আচরণের পর ফের অতিসম্প্রতি নির্বাহী সদস্য শিক্ষক দীপক শেঠকে লাঞ্চিত ও কুরুচিপূর্ণ আচরণ করেন সহ.সভাপতি কেএম আনিছুর রহমান। এ ঘটনায় দীপক শেঠের আবেদনের প্রেক্ষিতে শুক্রবার অনুষ্ঠিত জরুরী সাধারণ সভায় কেএম আনিছুর রহমানকে প্রেসক্লাবের সকল পদ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। একই সাথে ৫সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অতিদ্রুত তদন্ত শেষে ওই কমিটির দাখিলকৃত প্রতিবেদন অনুযায়ী পরবর্তী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তদন্ত কমিটির সদস্যরা হলেন- অধ্যাপক এমএ কালাম, শেখ মোসলেম আহম্মেদ, অধ্যাপক হাফিজুর রহমান, আব্দুর রহমান ও আতাউর রহমান। এদিকে, সভায় প্রেসক্লাবের নতুন সদস্য অন্তর্ভূক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে সাংবাদিক শেখ মোসলেম আহম্মেদ, শিক্ষক দীপক শেঠ ও প্রভাষক আরিফ মাহমুদকে সদস্য করে ৩সদস্য বিশিষ্ট নতুন সদস্য অন্তর্ভূক্তকরণ কমিটি গঠিত হয়েছে বলে জানা গেছে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই