মেইন ম্যেনু

সাজা শুনে কাঠগড়ায় মারা গেল আসামি

মোশারফ হোসেন (৪৮) নামে এক আসামি সোমবার ঢাকা সিএমএম আদালতের কাঠগড়ায় মৃত্যুবরণ করেছেন। ঢাকার চতুর্থ অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ওই ঘটনা ঘটে।

নিহত মোশারফ রমনা থানাধীন ৩২৩/এ মগবাজার নয়াটোলা চেয়ারম্যান বাড়ির মৃত আনোয়ার হোসেনের ছেলে। সে ঢাকার উত্তরা পশ্চিম থানার বিশপুরিয়া হেরোইনের অভিযোগে দায়ের করা ২৯(১১) ১২ নম্বর মামলার আসামি ছিলো।

জানা যায়, সোমবার উত্তরা পশ্চিম ২৯(১১)১২ নম্বরের ওই মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। ওইদিন আসামি মোশারফ হোসেনকে জেলহাজত থেকে আদালতে হাজির করা হয়। এদিন মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই সুমন চন্দ্র দাস সাক্ষ্য দিতে আদালতে আসেন।

ওই আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক মো. আলমগীর কবির রাজ তার সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। সাক্ষ্য গ্রহণের পর প্রায় ১৮ মাস জেলহাজতে থাকা ওই আসামি আইনজীবী না থাকায় দোষ স্বীকার করতে চান।

কিন্তু বিচারক ৫ বছর সাজা দিবেন জানালে বেলা ২টা ১০ মিনিটের দিকে কাঠগড়ায় আসামি মোশারফ ঢলে পড়েন। তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশের সহায়তায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আদালত সূত্র জানায়, আসামি মোশারফ ভেবেছিলেন সে প্রায় ১৮ মাস কারাগারে আছেন। আদালত যদি তাকে দুই বছর বা দেড় বছর কারাদণ্ড দেন তবে সে কারামুক্ত হতে পারবেন। কিন্তু বিচারক যখন ৫ বছর সাজা দিবেন বলে জানান তখনই সে কাঠগড়ায় ঢলে পড়েন।

উত্তরা পশ্চিম থানাধীন আব্দুল্লাহপুর পুলিশ বক্সের সামনের বটতলা থেকে ২০১২ সালের ২৩ নভেম্বর মোশারফ হোসেনকে ২০ পুরিয়া (৩ গ্রাম) হেরোইনসহ গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর থেকেই সে জেলহাজতেই ছিল।






মন্তব্য চালু নেই