মেইন ম্যেনু

সরকার গণতন্ত্রের বাক স্বাধীনতা কবর দিচ্ছে : লে.জে (অব.) মাহবুবুর

‘জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা-২০১৪ অনুমোদনের মাধ্যমে সরকার গণতন্ত্রের বাক স্বাধীনতাকে কবর দিচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে.জে (অব.) মাহবুবুর রহমান।

শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির সহযোগী সংগঠন ঐক্য পরিষদ আয়োজিত সংবাদ মাধ্যমের কণ্ঠরোধ কল্পে জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালার প্রতিবাদে গণসমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ অর্জিত হয়েছিল। আর মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র ছিল বাক স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র। এই স্বৈরাচারী সরকার বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধ ও গণতন্ত্রের বাক স্বাধীনতাকে হরণ করছে। এজন্য তারা আবার সম্প্রচার নীতিমালা পাস করতে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকারের কোনো নীতি-নৈতিকতা নেই। তারা অবৈধ। তারা জোর করে চোরাবালির ওপর দাঁড়িয়ে আছে। যে কোনো সময়ে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়বে। আর তাই দেশকে বাচাঁতে হলে গণতন্ত্রকে সমুন্নত করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এই কালো আইনের বিরুদ্ধে ১৬ কোটি মানুষকে ঐক্যদ্ধভাবে আন্দোলন করতে হবে। আর একে প্রতিহত করতে না পারলে দেশ ও গণতন্ত্র থাকবে না।’

মানববন্ধনে বিএনপির আরেক শীর্ষ নেতা জয়নুল আবেদিন ফারুক বলেন, ‘ইতিহাস বলে অতীতে যারা গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করে ক্ষমতা কুক্ষিগত করেছে তারা বেশি দিন ক্ষমতায় থাকতে পারেনি। এ সরকারও টিকতে পারবে না। সংবাদপত্রের স্বাধীনতা হরণ করেছিল বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর বাবাও। তার বাবার আদর্শ ছিলেন, তিনি সে আদর্শ তো বাস্তবায়ন করবেনই।’

তিনি বলেন, ‘১ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদের অধিবেশন বসবে। আর এখানে অনেক কালো আইন পাস করবে এ অবৈধ সরকার। তাই এর আগেই সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করতে হবে।’

সংগঠনের সভাপতি মেজর (অব:) হানিফের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন- দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি রকিবুল ইসলাম রিপনসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতাকর্মীরা।






মন্তব্য চালু নেই