মেইন ম্যেনু

সম্প্রচার নীতিমালা বাস্তবায়নের আগেই আক্রমণ

জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা বাস্তবায়ন হওয়ার আগেই বর্তমান ক্ষমতাসীনরা গণমাধ্যমের কর্মীদের ওপর বেপরোয়া ও হিংস্র আক্রমণ শুরু করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার বার্তা সম্পাদক রবিউল্লাহ রবি, মানবজমিন পত্রিকার সিলেটের বিশেষ প্রতিনিধি চৌধুরী মুমতাজকে গ্রেপ্তার এবং দৈনিক সমকাল পত্রিকার বরিশাল ব্যুরো চিফ ও বরিশাল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পুলক চ্যাটার্জীকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে গুরুতর আহত করার প্রতিবাদে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এ মন্তব্য করেন।

একই সঙ্গে তিনি দুর্নীতির সংবাদ পরিবেশন করায় পটুয়াখালীতে বিডি নিউজ টুয়েন্টি ফোর ডট কমের সাংবাদিক সঞ্জয় কুমার দাস এবং মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের পটুয়াখালী প্রতিনিধি মো. জলিলকে মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন। এসব ঘটনাকে অন্যায়, হিংসাশ্রয়ী, ন্যাক্কারজনক ও অমানবিক উল্লেখ করে তিনি তীব্র ক্ষোভ, নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা বাস্তবায়ন হওয়ার আগেই বর্তমান ক্ষমতাসীনরা গণমাধ্যমের কর্মীদের ওপর বেপরোয়া ও হিংস্র আক্রমণ শুরু করেছে। বর্তমান আওয়ামী অবৈধ সরকারের সৃষ্ট দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, আইনশৃঙ্খলার ভয়াবহ অবনতি, দুর্নীতি, অনিয়ম, শেয়ার মার্কেট কেলেঙ্কারী ও দমন-পীড়নে জনজীবনে দুর্গতির বিষয়ে দেশের সাংবাদিকরা যখন কলম হাতে জনগণের কাছে বস্তনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করছে ঠিক তখনই সরকার তাদেরকে স্তব্ধ করতে গ্রেপ্তার ও নির্যাতন শুরু করেছে।’

মির্জা আলমগীর বলেন, ‘আওয়ামী সরকার ক্ষমতার মোহে এবং দাপটে এতটাই উন্মাদ হয়ে গেছে যে, যারা জনসমাজের মুখপাত্র সেই সংবাদকর্মীদেরকে গ্রেপ্তার এবং তাদের উপর হামলা ও নির্যাতনের মাত্রা বৃদ্ধি করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল গণমাধ্যমের সংবাদকর্মীদেরকে গ্রেপ্তার এবং দৈনিক সমকালের বরিশাল ব্যুরো চিফ পুলক চ্যাটার্জীর ওপর বর্বর হামলা চালিয়ে তাকে গুরুতর আহত করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যে পৈশাচিক কায়দায় পুলক চ্যাটার্জীর ওপর হামলা চালানো হয়েছে তাতে একথা নিশ্চিতভাবে বলা যায়, দেশ থেকে বাক-ব্যক্তি স্বাধীনতা, কথা বলার অধিকার ও আইনের শাসন পুরোপুরি তিরোহিত হয়ে গেছে। সাংবাদিকদেরকে গ্রেপ্তার এবং তাদের উপর অত্যাচার-নির্যাতন চালিয়ে বর্তমান অবৈধ সরকার তাদের নিজেদের পতন ক্রমাগত তরান্বিত করছে।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃত সংবাদকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি এবং পুলক চ্যাটার্জির ওপর বর্বরোচিত হামলায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানান। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত পুলক চ্যাটার্জির আশু সুস্থতা কামনা করেন।






মন্তব্য চালু নেই