মেইন ম্যেনু

সমাবেশে যেতে না চাওয়ায় ছাত্রীরা রাতভর তালাবদ্ধ

সমাবেশে যেতে না চাওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের ছাত্রীদেরকে রাতভর রুমে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পদক জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে। যদিও এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পদক শেখ মারুফা নাবিলা। তিনি বলেন, হলে এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। কাউকে এ জন্য কোন নির্যাতন বা আটকিয়ে রাখাও হয়নি।

রবিবার বিকালে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছাত্রলীগের শোক সমাবেশ রয়েছে। সমাবেশে যেতে না চাওয়ায় শনিবার মধ্যরাতে এ ঘটনা ঘটে।

সূত্র জানায়, হলের ১০৩,১০৫, ১০৯ ও ১১০ নম্বর রুমে ছাত্রীদের আটকে রেখে তালা লাগিয়ে দেয় ঐ নেত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সমাবেশে অংশগ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে রাত ১টার দিকে হল সাধারণ সম্পাদক নাবিলা তার নিয়ন্ত্রিত কক্ষগুলোতে খবর দিতে থাকে। এসময় হলের বেশ কয়েকটি রুমের ছাত্রীরা সমাবেশে যেতে অস্বীকৃতি জানায়।

এতে নাবিলা তাদের ওপর ক্ষিপ্ত হন এবং সবাইকে রুমে আটকে রেখে বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দেন। সারারাত তাদেরকে রুমের মধ্যে বন্দি অবস্থায় আটকে রাখে। এখন পর্যন্ত ওই রুমগুলো তালাবদ্ধ রয়েছে বলে জানা গেছে।

হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি খাদিজা তুল কুবরা বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। সাধারণ ছাত্রীরা অভিযোগ করেছে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছুই জানিনা।

হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. সাবিতা রিজোয়ানা রহমান বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। এ বিষয়ে হলের ছাত্রলীগের নেত্রীরা মিটিংয়ে বসেছে।

ঢাবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. এম আমজাদ আলী বলেন, এ রকম কোন সংবাদ আমার কাছে আসেনি। আমি এর কিছুই জানিনা। তবে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।






মন্তব্য চালু নেই