মেইন ম্যেনু

শ্রমিকদের রক্তঝরা গৌরবের দিন আজ

আজ পহেলা মে। মহান মে দিবস। গোটা বিশ্বের শ্রমিকদের রক্তাক্ত গৌরবের দিন। বঞ্চনা, নির্যাতন ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের সংগ্রাম আর অধিকার আদায়ের রক্তমাখা দিন। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও দিবসটি পালন হবে যথাযোগ্য মর্যাদায়।

দিবসটি উপলক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি ও শ্রমিক সংগঠন বর্ণাঢ্য র‌্যালি, বিশেষ আলোচনা সভাসহ নানা কর্মসূচি পালন করছে।

আজ থেকে ১৩১ বছর আগে ১৮৮৬ সালের ঘটনা। দৈনিক আট ঘণ্টা কাজের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের হে মার্কেট চত্বরে শ্রমিকরা শুরু করে লাগাতার আন্দোলন। পহেলা মে সেই আন্দোলনকারী শ্রমিকদের ওপর নির্বিচার গুলি চালায় পুলিশ। এতে হতাহত হন অর্ধশত শ্রমিক।

সেই হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বে। দেশে দেশে গড়ে ওঠে মেহনতি জনতার ঐক্য। দাবি আদায় করতে সক্ষম হন শ্রমিকরা। ১৮৮৯ সালের ১৪ জুলাই ফ্রান্সের প্যারিসে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক শ্রমিক সম্মেলনে শিকাগোর রক্তঝরা দিনটিকে ‘মে দিবস’ হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মহান মে দিবস উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বিশ্বের অন্য সব দেশের মতো বাংলাদেশেও মে দিবস উপলক্ষে আজ সাধারণ ছুটি। সব শিল্পকারখানা বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে সংবাদপত্রও। দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে সংবাদপত্রে বিশেষ ক্রোড়পত্র ও বেতার-টেলিভিশনে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই