মেইন ম্যেনু

শুধু পারভেজই নয় জাতীয় সংগীতে চুইংগাম চিবিয়েছিলেন সৌরভও!

সম্প্রতি জাতীয় সংগীতের সময় চুইংগাম চিবিয়ে আলোচনায় আসেন ভারতের ক্রিকেটার পারভেজ রসূল। ২০০৩ বিশ্বকাপে টসে জিতে অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে ভুল করেছিলেন সৌরভ।

ম্যাচে জাতীয় সংগীতের সময় চুইংগাম চিবিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন পারভেজ রসুল। এবার সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে আরেকটি ভিডিও। যাতে দেখা যাচ্ছে, ভারতের জাতীয় সংগীত গাওয়ার সময় চুইংগাম চিবিয়েছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলীও। সেটিও ২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালের মতো ম্যাচে। আর সৌরভ সে ম্যাচে ছিলেন দলের অধিনায়ক।

ভারত-ইংল্যান্ড টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে টি-টোয়েন্টি অভিষেক হয় পারভেজের। ম্যাচ শুরুর আগে দুই দলের জাতীয় সংগীত বাজানোর সময় পারভেজকে চুইংগাম চিবোতে দেখা যায়। এ নিয়ে ভারতীয়দের মধ্যে ক্ষোভ আর হতাশা ছড়িয়ে পড়েছিল সামাজিক মাধ্যমে। তাঁদের বক্তব্য, জাতীয় দলের হয়ে খেলা মানে দেশকেই নেতৃত্ব দেওয়া।

জাতীয় সংগীত গাইতে জানে না—এমন কারও জাতীয় দলে খেলার যোগ্যতা আছে কি না, এমন প্রশ্নও করেছেন কেউ কেউ। একজন টুইট করেছেন, ‘খুবই হতাশ লাগছে পারভেজকে আরামে দাঁড়াও ভঙ্গিতে জাতীয় সংগীত চলার সময় চুইংগাম চিবোতে দেখে। ভারতের জাতীয় সংগীত গাইতে জানে না—এমন কেউ ভারতের জার্সি কি পরতে পারে?’

এবার দেখা গেল, সৌরভ ঠিক এই কাজটা করেছেন ২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালে। ক্যামেরায় যতবার ধরা হয়েছে সৌরভের মুখ, ততবার তাঁকে চুইংগাম চিবোতে দেখা গেছে। অবশ্য পাশাপাশি সৌরভ গাইছিলেনও।

মজার ব্যাপার হলো, ওই একই ভিডিওতে দেখা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সংগীত শুরুর ঠিক আগমুহূর্তে দলের অধিনায়ক রিকি পন্টিং থু করে মুখ থেকে চুইংগাম বের করে দেন। এরপর গানটা শুরু করেন।

২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারত হেরে গিয়েছিল বড় ব্যবধানে। অধিনায়ক সৌরভের সবচেয়ে হতাশার দিনগুলোর একটি ছিল সেটি। আর পুরোনো ক্ষত খুঁচিয়ে রক্তাক্ত করা হলো। এ নিয়ে যে আবার শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক। তাতে সৌরভের দেশপ্রেম নিয়েও প্রশ্ন তোলা হচ্ছে!






মন্তব্য চালু নেই