মেইন ম্যেনু

শিগগির শুরু হচ্ছে নৌ পুলিশের কার্যক্রম

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, নদী পথের চাঁদাবাজি ও ডাকাতি বন্ধসহ   নিরাপত্তার জন্য গঠন করা হয়েছে নৌ-পুলিশ। শিগগির নৌ-পুলিশের কার্যক্রম শুরু হবে।

রোববার স্বারাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ‘নৌ পথে চাঁদাবাজি বন্ধে করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

শাজাহান খান বলেন, নৌ-নিরাপত্তার পাশাপাশি নৌ-যানের নিরাপত্তায় কোস্ট গার্ডের সঙ্গে কাজ করবে নৌ-পুলিশ। প্রাথমিকভাবে  ৭৩০ জন সদস্য নিয়ে নৌ-পুলিশ বাহিনী গঠন করা হয়েছে।

নৌ-পথের চাঁদাবাজি বন্ধ করা প্রসঙ্গে নৌমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, দেশের ১৬ টি জেলায় বেশ কিছু জায়গা চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব জায়গায় অভিযান পরিচালনা করা হবে। কোনো চাঁদাবাজকেই রেহাই দেওয়া হবে না। ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নৌমন্ত্রী বলেন, নৌ-পথের চাঁদাবাজি ও ডাকাতি বিষয়ে প্রয়োজনীয় সুপারিশমালা তৈরির জন্য স্বারাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিবকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। পাশাপাশি স্থানীয় পর্যায়েও একটি কমিট গঠন করা হয়েছে। এই দুই কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতেই প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, নৌযানের নিরাপত্তা তথা নৌযাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য ত্রুটিমুক্ত নৌ-যান চলাচলের জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তা দেবে সমুদ্র পরিবহণ অধিদপ্তর। এছাড়াও ঝড়ো আবহাওয়া ও বর্ষা মৌসুমে নৌদুর্ঘটনা বেশি হওয়ার কারণে নৌ-যানের মাস্টার ও ড্রাইভারদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই