মেইন ম্যেনু

শিকাগোর এক পার্কে রহস্যজনক গর্ত!

রহস্যজনক ‘মানুষখেকো’ গর্ত দেখা দিলো বালির পাহাড়ে।শিকাগোর দক্ষিণ-পূর্ব প্রান্তে অবস্থিত ওহফরধহধ উঁহবং ঘধঃরড়হধষ খধশবংযড়ৎব -এর বালিয়াড়িতে ঘুরতে গিয়ে হঠাৎ করেই সবার চোখের সামনে অদৃশ্য হয়ে যায় ছ’বছরের নাথান। নাথান যেখান থেকে অদৃশ্য হয়েছিল সেই জায়গার কাছাকাছি গিয়ে দেখা যায় সেখানে হঠাৎই তৈরি হয়েছে একটা গর্ত। আর সেই গর্তেই পড়ে গেছে নাথান। উদ্ধারকারী দল বহু কষ্টে উদ্ধার করে ছোট্ট নাথানকে।

পড়ে দেখা যায় নাথান যে গর্তে পড়ে গিয়েছিল সেটা প্রায় ১১মিটার গভীর। তবে অদ্ভুতভাবে গর্তটা কিছুদিনের মধ্যে আবারো অদৃশ্য হয়ে যায়। মাউন্ট বাল্ডিতে অবস্থিত ওই বালিয়ারির অন্যান্য জায়গায় জন্ম নেয় আরও একই রকম গর্ত। একদিনের মধ্যে সেই গর্তও বন্ধ হয়ে গিয়ে জন্ম নেয় নতুন রহস্যজনক অন্য গর্ত। পার্ক কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয়ে পার্কের ওই অংশ বন্ধ করে দেয়।

এই ঘটনা সারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নৃতত্ত্ববিদদের মধ্যে হইচই ফেলে দেয়। মাউন্ট বাল্ডির রহস্যজনক গর্তের রহস্যের কিনারা করতে উঠে পড়ে লাগেন তাঁরা।

বিজ্ঞানীদের মতে এই গর্তগুলি আসলে এক ধরণের চোরাবালি। ভেজা ভারী বালির যে ধরণের চোরাবালির সঙ্গে সাধারণভাবে সবাই পরিচিত তার থেকে এই চোরাবালির চরিত্র বেশ খানিকটা ভিন্ন ধরণের। মানুষের তৈরি বালিয়াড়িতে হঠাৎ হঠাৎ এই ধরণের গর্ত তৈরি হতে পারে যেগুলি কোন বস্তুকে নিজের গহ্বরে টেনে নিতে সক্ষম।






মন্তব্য চালু নেই