মেইন ম্যেনু

শান্ত শিশুর মনের কথা জানবেন কীভাবে?

শিশুরা চঞ্চল, দুষ্ট, উচ্ছল, প্রাণবন্ত। কিন্তু সব শিশুই এমন নয়। কিছু শিশু চুপচাপ থাকতেই ভালোবাসে। নিজের মত তাদের একটি পৃথিবী আছে, সেখানে শান্ত পায়ে বিচরণ করে তারা। তারা ভাবতে পছন্দ করে, বলতে নয়! চাপা স্বভাবের এই শিশুরা নিজের কথা প্রকাশ করে না সহজে। তাদের উৎসাহ, আগ্রহ বোঝা কঠিন হয়ে পড়ে তাই। ইন্ট্রোভার্ট এই শিশুদের পথ দেখানো একটা চ্যালেঞ্জের মত হয়ে দাঁড়ায় বাবা-মায়ের কাছে। কীভাবে আপনার শান্ত শিশুর মনের কথা জানবেন, জেনে নিন কিছু কৌশল-

নিজের ভাষা পরিবর্তন করুন
শান্ত শিশুরা আপনার আচরণকে পড়তে থাকে নিজের মত করে। তারা নিজে একটা মানে বুঝে নেয়! পাল্টা প্রশ্ন করে না কখনো। এরিকা রিসার্চার পি.এইচ.ডি বলেন, ‘আপনি যখন আপনার শিশুকে লাজুক বলে অন্যের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন তখন তার মনে হয় শান্ত হওয়া দোষের কিছু।’ এরিকার লেখা চমৎকার একটি বই হল ’75 Simple Strategies for Raising Kids Who Thrive’। শিশুদের অনুভব করানো যে, তারা যেমন তেমনই সঠিক এটি তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়ায়। তখন তারা মনের কথা খুলে বলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে।

কথা বলতে শুরু করুন
কোন বিশেষ ঘটনা কি তাকে শান্ত করে দিয়েছে? নাকি সে সবসময়ই এমন? যদি হঠাৎ করে নীরবতা গ্রাস করে তাকে তাহলে বিষয়টি অবশ্যই দুশ্চিন্তার। গম্ভীরতার সাথে এই সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নিন। তার সাথে কথা বলতে শুরু করুন। বন্ধুর মতো জানতে চেষ্টা করুন তার মনের কথা। প্রথমেই আপনি সফল হবেন না, নিশ্চিত থাকুন। ধৈর্য্য ধরে বারবার চেষ্টা করুন।

সামাজিকতা অনুশীলন করুন
আমরা বড়রা যত সহজে অপরিচিতদের সাথে মিশতে পারি আপনার শান্ত বাচ্চাটি ততটা সহজে মিশতে নাও পারতে পারে। তাদেরকে হঠাৎ অনেক মানুষের ভিড়ে না নিয়ে ধীরে ধীরে মানুষের সাথে সামাজিকতার অনুশীলন করানোর পরামর্শ দেন মারিয়া জিম্মিটি পি.এইচ.ডি.। তিনি ওয়াশিংটন ডিসিতে জর্জটাউন সাইকোলজি এসোসিয়েটস এর প্রেসিডেন্ট। মারিয়া মনে করেন, শিশুকে সাবলীল করতে সর্বোপরি অভিভাবকের ধৈর্য্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

পরিকল্পনা করুন
শিশুকে কথা বলতে বা অন্যদের সাথে সাবলিল মেলামেশা করতে উৎসাহিত করতে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নিন। তার সহপাঠী কারও জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানাতে উৎসাহ দিন। নিজেও সামাজিকতার চর্চা করুন যাতে তার কাছে এসব স্বাভাবিক মনে হয়। ছোট ছোট নানান বিষয়ে নিজেই দায়িত্ব নিন সম্পর্ক স্থাপনের। তবে খেয়াল রাখুন, শিশু যেন বিব্রত বোধ না করে।

ইতিবাচক পরিবেশ গড়ে তুলুন
শিশুকে তার কাজের জন্য প্রশংসা করুন। ছোট ছোট ব্যাপারে উৎসাহ দিন। আপনার শিশু শান্ত বা লাজুক যাই হোক না কেন অন্য সব শিশুদের মতোই প্রশংসা পেতে ভাল লাগবে তার। নিজেও তার সাথে খেলুন, টিভি দেখুন, বেড়াতে যান। তার পছন্দগুলো আপনিও পছন্দ করেন সেটা তার কাছে তুলে ধরুন। ধীরে ধীরে শিশুটি মন খুলে কথা বলতে শুরু করবে।

সূত্র: প্যারেন্টস






মন্তব্য চালু নেই