মেইন ম্যেনু

র‌্যাব এখন রক্ষীবাহিনীর প্রেতাত্মা: রিজভী

দেশের আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো দুর্নীতির শৃঙ্খলে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের বক্তব্যের বরাত দিয়ে রিজভী বলেছেন, তারা যথার্থই বলেছে, বাংলাদেশের আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো আইনের শাসনের প্রতি অনুগত নয়, তারা দুর্নীতি শৃঙ্খলের প্রতি অনুগত। আর এই দুর্নীতি শৃঙ্খলই জাতির টুঁটি টিপে ধরেছে।

বুধবার সকালে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন।

১৯ মে উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকার পূর্বের ন্যায় কেন্দ্র দখল, জালভোটের মহাউৎসবের চক্রান্ত করছে। সরকারের মদতপুষ্ট সন্ত্রাসী বাহিনী বিরোধী দলের প্রার্থীদের প্রচার ও প্রচারণায় বাঁধা দিচ্ছে। বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের সমর্থকদের ভয়-ভীতি ও হুমকি দিচ্ছে।যাবকে বিলুপ্ত করার দাবি পুনর্ব্যক্ত করে বিএনপির এই নেতা বলেন, এ বাহিনীকে এখনই বিলুপ্ত না করলে মানুষের জীবননাশের ঘটনা ঘটতেই থাকবে।রিজভী বলেন, র‌্যাব এখন মূর্তিমান বর্গীসেনা, সিরিয়াল কিলার, রক্ত নিংড়ানো পিষ্টনযন্ত্র, রক্ষীবাহিনীর প্রেতাত্মা। সরকার দেশব্যাপী খুন-খারাবি চালিয়ে যাওয়া নিজস্ব মার্সিনারি বাহিনীতে পরিণত করেছে।

তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বিরোধী শক্তি দমনের জন্য হত্যা, গুম, অপহরণের অবাধ অধিকার দেওয়া হয়েছে।

রিজভী বলেন, ৬ মাস আগে কুমিল্লার লাকসামে গুম হওয়া সাবেক সাংসদ হিরু ও স্থানীয় বিএনপি নেতা হুমায়ুন গুমের পেছনে ওই মন্ত্রীর জামাতা তারেক সাঈদ মোহাম্মদ জড়িত বলেও অভিযোগ করছে তাদের পরিবার। লাকসামের সর্বস্তরের জনগণ তারেক সাঈদের বিচারের দাবিতে ফুঁসে উঠেছেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, যে দেশের সরকার অবৈধ সে দেশের আইন-শ্ঙ্খৃলা বাহিনীর সদস্যদের গডফাদার সেজে ওঠাই স্বাভাবিক। কারণ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অধিকার দেয়া হয়েছে বিরোধী শক্তি দমন ও তাদের হত্যা-গুমের। একই সঙ্গে তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সরকারের নীলনকশা বাস্তবায়ন করছে।

এক প্রশ্নে জবাবে বিএনপির এই নেতা বলেন, র‌্যাব প্রতিষ্ঠাকালীন যে সুনাম অর্জন করেছিল তা আজ বিনষ্ট হয়েছে। র‌্যাব এখন ঘাতক বাহিনীতে পরিণত হয়েছে। সংস্কার করেও জনগণের আস্থা অর্জন করতে পারবে না। ফলে র‌্যাবকে সংস্কার নয়, বিলপ্ত করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ৭ খুনের সাথে যারা জড়িত তাদের খুঁজে বিচার করা হবে- প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, নিহত নজরুলের শ্বশুর বলেছেন র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্ণেল জিয়াউল আহসানই ৭ খুনের প্রধান আসামী নূর হোসেনকে ভারতে পালাতে সহযোগিতা করেছেন। এই জিয়াউলই প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত কাছের ব্যক্তি। প্রধানমন্ত্রী কাছের ব্যক্তি হওয়ার কারণে এখনও গ্রেপ্তার করা হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আব্দুস সালাম, বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই