মেইন ম্যেনু

রাডার ক্রয়ে দুর্নীতি করিনি: এরশাদ

বিমানের রাডার ক্রয়ে কোন দুর্নীতি করেননি বলে দাবি করেছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচএম এরশাদ। মামলায় প্রধান অভিযুক্ত মামলাটির আত্মপক্ষ শুনানিতে বৃহস্পতিবার ঢাকার বিভাগীয় বিশেষ জজ আব্দুর রশিদ দোষী না নির্দোষ জিজ্ঞাসা করলে তিনি এ দাবি করেন।

একই সঙ্গে অপর আসামি সাবেক সহকারী বিমান বাহিনীর প্রধান সুলতান মাহমুদ ও মমতাজ উদ্দিন আহমদও নিজেদের নির্দোষ বলে দাবি করলে আগামী ২৯ মে যুক্তিতর্কের শুনানির দিনও ঠিক করেন।

মামলার অপর আসামি ইউনাইটেড ট্রের্ডাস লিমিটেডের পরিচালক একেএম মুসা শুরু থেকে পলাতক রয়েছেন।

বাদী ও তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক মঞ্জুর আহমদসহ ১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ গত ২৪ এপ্রিল শেষ হয়।

১৯৯২ সালের ৪ মে তৎকালীন দুর্নীতি দমন ব্যুরো মামলাটি দায়েরের পর ১৯৯৪ সালের ২৭ অক্টোবর আদালতে চার্জশিট দাখিল করে।

১৯৯৫ সালের ১২ আগস্ট এরশাদসহ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের পর ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত মামলাটি সুপ্রিম কোর্টের আদেশে স্থগিত ছিল। মামলার ১৮ বছর পর ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট শুরু হয় বাদীর সাক্ষ্যগ্রহণ।

আসামিরা অবৈধ আর্থিক সুবিধা নিয়ে ফ্রান্সের থমসন সিএসএফ কোম্পানির অত্যাধুনিক রাডার না কিনে বেশি দামে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্টিং কোম্পানির রাডার কিনে সরকারের ৬৪ কোটি ৪ লক্ষ ৪২ হাজার ৯১৮ টাকা আর্থিক ক্ষতি করেন বলে অভিযোগ করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই