মেইন ম্যেনু

রবীন্দ্রনাথ শুধু একটি নাম নয়, প্রতিষ্ঠান

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর শুধু একটি নাম নয়, তিনি নিজেই একটি প্রতিষ্ঠান।
তিনি বলেন, ‘ইংরেজি সাহিত্যের কথা আসলে যেমন শেক্সপিয়রের কথা আসে তেমন বাংলা সাহিত্যেও কথা আসলে রবীন্দ্রনাথের কথা আসে। তিনি সাহিত্যের সকল ক্ষেত্রে বিচরণ করে চিত্রকলাতেও নিজের কৃতিত্ব দেখিয়েছেন।’
৮ মে (২৫ শে বৈশাখ) বৃহস্পতিবার বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৩ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় পর্যায়ে ‘১৫৩ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ১৪২১’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।
অর্থমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আদর্শ দল-মত নির্বিশেষে সকল স্তরে ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বানও জানান।
প্রতিবারের মতো এ বছরও জন্মবার্ষিকীর মূল অনুষ্ঠান হয় ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে। সকাল ১১টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়।
সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রস্মারক বক্তব্য দেন অধ্যাপক জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি সচিব ড. রণজিৎ কুমার বিশ্বাস।
এবার বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মবার্ষিকী উদযাপনের থিম নির্ধারণ করা হয়েছে ‘বাংলাদেশ ও রবীন্দ্রনাথ’। অনুষ্ঠানে বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসসমূহের অনেক দূত ও উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ইংরেজি ভাষায় লেখা রবীন্দ্রনাথের উপর সংকলিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর তার সভাপতির বক্তব্যে বলেন, ‘রবীন্দ্রনাথ দর্শনের মূল চেতনা হলো অসাম্প্রদায়িকতা। এ চেতনা দিয়ে উগ্র জঙ্গিবাদ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে। কারণ রবীন্দ্রনাথ সত্যের প্রতি অবিচল থাকতে শিখিয়েছেন আর অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে প্রেরণা যুগিয়েছেন।’
বাঙ্গালি ও রবীন্দনাথ ঠাকুর অভিন্ন সত্তা উল্লেখ করে সংস্কৃতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাঙ্গালি ও রবীন্দনাথ ঠাকুরকে পৃথক করা যাবে না। আমাদের সাহিত্যে যেমন জড়িয়ে আছে তেমন অস্তিত্বেও জড়িয়ে আছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। প্রেমের মঞ্চে তিনি আমাদের উজ্জীবীত করেছেন। সে প্রেম হলো দেশপ্রেম।’
অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে শিল্পকলা আয়োজনে দলীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এরপর বুলবুল ইসলাম পরিবেশন করেন একক সংগীত। আর বিশিষ্ট রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী রেজোয়ানা চৌধুরী বন্যা পরিবেশন করেন রবীন্দ্রসংগীত। মিনু হকের পরিচালনায় সমবেত নৃত্য উপস্থাপিত হয়।






মন্তব্য চালু নেই