মেইন ম্যেনু

যে কারণে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির নাম বলিউড!

ভারতের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি মানেই নাকি বলিউড। অনেকেই এমনটা মনে করে থাকেন। বেশিরভাগের কাছেই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি আর বলিউড প্রায় সমার্থক। তাদের কাছে এই দু’টোর ধারণা ঠিক পরিষ্কার নয়। আসলে ভারতের প্রচুর স্থানীয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির মতোই বলিউড-ও একটি স্থানীয় ইন্ডাস্ট্রি। খবর আনন্দবাজারের।

প্রধানত হিন্দি ভাষায় ছবি তৈরি হয় এই ইন্ডাস্ট্রিতে। বলিউড ছাড়াও পাঞ্জাবি, তামিল, তেলুগু, বাংলা, কান্নাডা, ভোজপুরি, আসামি, গুজরাতির মতো একাধিক ভাষার ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিও রয়েছে ভারতে। তবে সর্বাধিক জনপ্রিয় বললে একবারেই মাথায় আসবে ‘বলিউড’-এর নামটাই।

কিন্তু হঠাত্‍ ‘বলিউড’ নাম কেন দেওয়া হিন্দি ভাষার এই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে? নাহ! এর মধ্যে ভারতের কোনও নিজস্বতা নেই।
সমস্ত ক্রেডিট কিন্তু হলিউডেরই প্রাপ্য।

আমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলসে রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি হলিউড। দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার যে অঞ্চলে এই ইন্ডাস্ট্রি, সেই জায়গাটির নাম হলিউড। পরে গোটা ইন্ডাস্ট্রির নামই হয়ে যায় হলিউড।

হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ‘বলিউড’ নামটি ধার করা হলিউড নাম থেকেই। সেই সময় ভারতের বেশিরভাগ ছবিই তৈরি হত তত্‍কালীন বম্বে অধুনা মুম্বাই শহরে। বম্বে নামটির ছোঁয়া রেখে তাই এই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির নাম হয় বলিউড। বর্তমানে এই ইন্ডাস্ট্রিই তৈরি হওয়া ছবির সংখ্যার ভিত্তিতে বিশ্বে প্রথম স্থান দখল করেছে। বলিউডের পরে রয়েছে নাইজেরিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি ‘নলিউড’ এবং তার পরে রয়েছে আমেরিকান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি ‘হলিউড’।






মন্তব্য চালু নেই