মেইন ম্যেনু

যে কারণে মোদির কাছে বিয়ের তথ্য চাইলেন স্ত্রী যশোদাবেন

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিয়ে করেছেন, তার স্ত্রী ভারতেই বাস করছেন- তা বহুকাল গোপন ছিল। সম্প্রতি দেশটির প্রধানমন্ত্রী পদে নির্বাচনে মোদি প্রার্থী হলে বিয়ে বিতর্ক সামনে চলে আসে। পরে অবশ্য নির্বাচনী হলফনামায় বিয়র কথা স্বীকার করে নেন তিনি। তবে এবার মোদির কাছে সেই বিয়ের তথ্য জানতে চাইলেন স্ত্রী যশোদাবেন।

দেশের প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী হিসেবে আইনি নিরাপত্তা পান যশোদাবেন। তার পরেও বিয়র পর অনেকটা সময় গড়িয়ে যাওয়ার পর এখন কেন বিয়ের তথ্য চাইলেন তিনি? অবশ্য এর পেছনে যৌক্তিক কারণও রয়েছে।

কারণটা হলো- যশোদাবেনের কাছে বিয়ের প্রমাণ চেয়েছে আঞ্চলিক পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষ। বিয়ের সনদ বা আইনি কাগজ জমা দিতে না পারায় যশোদাবেনের পাসপোর্টের আবেদন বাতিল হয়েছে। অগত্যা আরটিআই আবেদন করে পাসপোর্টে মোদি বিয়ের কী তথ্যপ্রমাণ দিয়েছেন, জানতে চেয়েছেন যশোদাবেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছ, বুধবার যশোদাবেন আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ে আরটিআইয়ের আবেদন জমা দিয়েছেন। আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ের কর্মকর্তা জেড এ খান বলেন, গত নভেম্বর মাসে বিয়ের সনদপত্র বা প্রমাণ হিসেবে আইনি কাগজ না থাকায় যশোদাবেনের পাসপোর্টের আবেদন বাতিল করা হয়। গতকাল আরটিআই আবেদন করে যশোদাবেন জানতে চেয়েছেন, গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালে মোদি তাঁর পাসপোর্টে বিয়ে-সংক্রান্ত কী তথ্য দিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই