মেইন ম্যেনু

যশোর সংবাদ (৩১/৫/১৪)

## সাংবাদিকদের সাথে সাংসদ নাবিলের মতবিনিময়
আবিদুর রেজা খান : যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ অঙ্গীকার করে বলেছেন,যশোরকে সন্ত্রাসমুক্ত ও সাধারণ মানুষের বসবাস যোগ্য করে গড়ে তোলা হবে। শনিবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরে স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ সব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন ‘যারা সন্ত্রাসের সঙ্গে সম্পৃক্ত,তাদের আটকের জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি সরকারের সুস্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে। সন্ত্রাসীরা কোন দলের বা কোন মতের তা বিবেচ্য বিষয় নয়। পুলিশ প্রশাসন স্বাধীন ভাবে কাজ করবে। এ সময় উপস্থিতছিলেন যশোর সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি একরাম-উদ-দ্দৌলা, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিমন খান, দ্য রিপোর্ট’র উপদেষ্টা সম্পাদক ফকির শওকত, দৈনিক কালের কণ্ঠ’র জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ফখরে আলম, দৈনিক গ্রামের কাগজ’র সম্পাদক মবিনুল ইসলাম, নির্বাহী সম্পাদক আসাদুজ্জামান প্রমুখ । অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, যুগ্ম-সম্পাদক আব্দার রহমান আব্দার, সাংস্কৃতিক সম্পাদক জয়ন্ত বিশ্বাস, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. সেতারা খাতুন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রজন্মের ভাবনার সম্পাদক মোহিতকুমার নাথ প্রমুখ।
কাজী নাবিল বলেন, যশোর ৩ আসনের কাউকে চাঁদা দিতে হবে না। স্বাভাবিক জীবনযাপন ও সর্বোপরি স্বাভাবিক কাজকর্ম করতে পারে- সে ব্যবস্থা করতে চাই। ‘যশোরের উন্নয়নে আমরা সব সংসদ সদস্য একযোগে কাজ করতে ইতোমধ্যে ঐকমত্যে পৌঁছেছি বলে তিনি জানান।’তিনি বলেন, আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের চেতনা বাস্তবায়ন ও জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০২১ বাস্তবায়নে একজন নির্ভিক সৈনিক হতে চাই। তার ধাাবাহিকতায় আমি জনগনের সেবার দ্বায়িত্ব কাধে নেওয়ার পর যশোরের মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছি। দেখার ও জানার চেষ্টা করছি তাদের সুবিধা অসুবিধা। তিনি বলেন যশোরের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানসহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য আমি কাজ করছি। সরকারের সকল সুযোগ সুবিধা জনগনের দৌরগোড়ায় পৌছে দেওয়াটাই আমার কাজ বলে তিনি উল্লেখ্য করে বলেন, আমি জনগনের সেবক হয়ে বেঁচে থাকতে চাই। তিনি যশোরের সাবেক সংসদ সদস্য মশিউর রহমান ও রওশন আলীকে দেব তুল্য বরে আক্ষায়িত করেন। তিনি আরো বলেন খালেদুর রহমান টিটো ও আলী রেজা রাজু জনগনের সেবা করেছেন আমিও জনগনের সেবা করে যেতে চাই। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গত ২০ বছরে যশোরের উন্নয়ন তেমন একটা হয়নি। সে কারনে আমার প্রথম কাজ হবে ভৈরব নদ সংস্কারের মাধ্যমে শহরকে আরও সুন্দর করতে পদক্ষেপ নেওয়া হবে ।

## বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচন
যশোরে স্বপনের প্যানেল এগিয়ে
যশোর অফিস: আগামী ৪ জুন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচন। এদিনে যশোর জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে যশোর জেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ২হাজার ৪শ’৮৬ জন। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ভোটারের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। এখানে ভোটার রয়েছে ১ হাজার ৮৩ জন। অন্যদিকে, শার্শায় ২শ’ ১ জন, ঝিকরগাছায় ২শ’৭৭ জন, মণিরামপুরে ২শ’৪২ জন, চৌগাছায় ২শ’২৯ জন, অভয়নগরে ১শ’৩৩ জন ও কেশবপুরে ৮৭ জন।
ইতোমধ্যে মণিরামপুর, অভয়নগর, শার্শা ও ঝিকরগাছায় একটি করে প্যানেল থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এই উপজেলাগুলোতে শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় ও জেলার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। কেশবপুরে উপজেলা কমান্ডার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় এখানে অন্যান্য পদে নির্বাচন হবে। অপরদিকে যশোর সদর, বাঘারপাড়া, চৌগাছায় দু’টি করে প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় এখানে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। মুক্তিযোদ্ধারা ভোট দিতে তিনটি ব্যালট পেপার পাবেন। একটি কেন্দ্রের, একটি জেলার ও অপরটি উপজেলার। যে সমস্ত উপজেলায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন তারা শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় ও জেলার ব্যালটে ভোট দিতে পারবেন।
এবারের নির্বাচনে যশোর জেলায় দু’টি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। একটির নেতৃত্বে আছেন রাজেক আহমেদ ও অপরটির মাজহারুল ইসলাম মন্টু। নির্বাচনী জরিপে দেখা যায়, রাজেক আহমেদের নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক সচেতন প্যানেলটি প্রচার প্রপাগান্ডায় অনেক এগিয়ে রয়েছে। ইতোমধ্যে এই প্যানেলটির প্রার্থীরা ভোটারদের সাথে গণসংযোগ প্রায় শেষ করে ফেলেছেন। আগামীতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন, সৎ ও যোগ্য নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে ভোটারদের অকুন্ঠ সমর্থন চেয়েছেন এ প্যানেলের প্রার্থীরা। এসব মতবিনিময় সভায় মুক্তিযুদ্ধের সময় নেতৃত্বদানকারী জেলা মুজিববাহিনীর প্রধান আলী হোসেন মনি, উপ-প্রধান রবিউল আলম, মুক্তিযোদ্ধা নেতা খয়রাত হোসেন, একরাম-উদ-দ্দৌলাসহ অন্যান্যরা রাজেক আহমেদের প্যানেলকে বাস মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছেন। অপরদিকে, যশোর সদর উপজেলায় দু’টি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। একটির নেতৃত্বে রয়েছেন শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ আলী স্বপন ও অপরটির নেতৃত্বে রয়েছেন আব্দুস সবুর হেলাল। মোহাম্মদ আলী স্বপনের নেতৃত্বাধীন প্যানেলের প্রার্থীরা ইতোমধ্যে ১৫টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় গণসংযোগসহ মতবিনিময় সভা করেছেন। ৪ জুন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত স্ব-স্ব উপজেলার কেন্দ্রে কেন্দ্রীয়, জেলা ও উপজেলার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। যশোর সদর উপজেলার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে স্থানীয় জিলা স্কুল কেন্দ্রে।

## যশোরে ট্রেনে কেটে অজ্ঞাত মহিলা নিহত
যশোর অফিস: যশোরে ট্রেনে কেটে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক মহিলা (৪০) নিহত হয়েছেন।এ ঘটনায় খুলনা জিআরপি থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। জিআর পি সুত্রে জানা যায় শনিবার ভোরে যশোর রেলষ্টেশনের পাশে ট্রেনে কাটা পড়ে মারা যান তিনি।

## যশোর থেকে ট্রাক চুরি ॥ চোর আটক
যশোর অফিস: যশোর উপশহর ফিলিং ষ্টেশন থেকে শুক্রবার রাতে চুরি হওয়া ট্রাকটি ঝিনাইদহ থেকে উদ্ধার হয়েছে। চুরির সাথে জড়িত অভিযোগে পুলিশ আলী আরশাদ নামে একজনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। যশোর সদর উপজেলার কিসমত নওয়াপাড়া গ্রামের মনুর বাড়ির ভাড়াটিয়া বিএম ওয়াহিদ মুরাদ তার ট্রাক(যশোর-ট-১১-০০২৪) শুক্রবার রাত ১২ টার সময় উপশহর ফিলিং ষ্টেশনের সামনে রেখে বাড়ি যান। শনিবার সকালে এসে ট্রাকটি আর পাননি। পরবর্তীতে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায় জানতে পারেন ট্রাকটি ঝিনাইদহ পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। সেখানে ট্রাক চোর শরিয়তপুর জেলার সদর উপজেলা গুরধা গ্রামের সামছু হাওলাদারের পুত্র আলী আরশাদও আটক হয়।

## যশোরে ফেনসিডিল ইয়াবা ও চোলাইমদসহ ছয় চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা আটক
যশোর অফিস: যশোর ডিবি পুলিশ ও সদর ফাঁড়ির পুলিশ পৃথক অভিযান চালায়। এ সময় ছয় মাদক বিক্রেতা আটক করেছে। তাদের কাছ থেকে ফেনসিডিল ইয়াবা ও চোলাইমদ উদ্ধার করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে,শহরের চাঁচড়া রায়পাড়ার আনছার পকেটমারের পুত্র জয়নাল,জিয়াদ আলীর পুত্র শফিকুল ইসলাম ওরফে বাবু ওরফে পলিথিন বাবু,দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলোর পুত্র কামরুল হাসান মামুন,মৃত আব্দুস সাত্তারের পুত্র জাফর,সালাউদ্দিনরে পুত্র নাদিম ও পূর্ব বারান্দীপাড়া লেবুতলা এলাকার হোসেন গাজীর পুত্র জাকির হোসেন ওরফে টুটুল।
শুক্রবার রাতে ডিবি’র এএসআই আলমগীর হোসেন যশোর পূর্ব বারান্দী পাড়া এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় জাকির হোসেন ওরফে টুটুলকে াাটক করে। তার কাছ থেকে ৩৪ পিস ইয়াবা ও ২ লিটার চোলাই মদ উদ্ধার করে। অপরদিকে শনিবার ভোরে সদর ফাঁড়ির পুলিশ চাঁচড়া রায়পাড়া জাফরের বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় জাফরকে ২০ বোতল নাদিমকে ২০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে। এ সময় পরিত্যাক্ত অবস্থায় ১০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে। এ ছাড়াও সদর ফাঁড়ির পুলিশ সকালে চাঁচড়া রায়পাড়া টাক জালালের বাড়ির উত্তর পাশ থেকে ১০ বোতল ফেনসিডিল ও ৪৫ পিস ইয়াবাসহ জয়নাল,শফিকুল ইসলাম বাবু ওরফে পলিথিন বাবু এবং কামরুল হাসান মামুনকে আটক করে। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় পৃথক মামলা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই