মেইন ম্যেনু

যশোরে এক যুবককে গুলি করে হত্যা, লাশ নিয়ে মিছিল ॥ থানা ঘেরাও

যশোর অফিস: পূর্ব শত্র“তার জের ধরে যশোর শহরতলী ঝুমঝুমপুর উত্তর পাড়া পাটেলের চায়ের দোকানের সামনে হাফিজুর রহমান ওরফে হাফিজ (২২) কে গুলি করে হত্যা করেছে চিহ্নিত দূবৃর্ত্তরা । হত্যাকান্ডর ঘটনায় এলাকাবাসী হাফিজের লাশ নিয়ে মিছিল করে। এ সময় থানা ঘেরাও করে।হত্যাকান্ডর সাথে জড়িত কাউকে পুলিশ আটক করতে পারেনি। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
জানা যায় যশোর শহরতলী ঝুমঝুমপুর উত্তর পাড়ার মনা মিয়ার পুত্র হাফিজুর রহমান ওরফে হাফিজ মঙ্গলবার দুপুর পৌনে ২ টায় এলাকার জনৈক পাটেলের চায়ের দোকানের সামনে রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় পূর্ব শত্র“তার কারনে চাঁনপাড়ার রশিদের পুত্র বাবুল,ঝুমঝুমপুর বড় বাড়ি এলাকার মুরাদের পুত্র সাঈদ,জরিনার পুত্র আনারুল,মিন্টু,নাঈমসহ অজ্ঞাত ৪/৫জন দূর্বৃত্ত সশস্ত্র অবস্থায় এসে হাফিজকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষন করে। দূর্বৃত্তদের ছোড়া গুলি হাফিজের মাথার বাম পাশে ও ডান হাতে বিদ্ধ হয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে দ্রুত যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়। জরুরী বিভাগের চিকিৎসক হাফিজকে মৃত ঘোষনা করে। হাফিজের লাশের ময়না তদন্ত শেষে বিকেল ৫ টার দিকে লাশ নিয়ে মিছিল করে থানা ঘেরাও করে। হত্যাকারীদের আটকের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে হাফিজের লাশ বাড়িতে নিয়ে যাওয়া যায়। এলাকার একটি সুত্র জানায় হাফিজ আহাদ জুট মিলের শ্রমিক। তার পিতা রিকশা চালক। এলাকার কিছু সন্ত্রাসী যুবকদের সাথে তার কিছুদিন পূর্ব থেকে বিরোধ চলে আসছিল। হাফিজ জাহিদ নামের এক যুবককে মারপিটের জের ধরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। হাফিজ হত্যা কান্ডের ঘটনায় নিহতে মা সবিরোন নেছা বাদি হয়ে যশোর কোতয়ালি থানায় অভিযোগ করেছে।






মন্তব্য চালু নেই