মেইন ম্যেনু

যশোরের শার্শায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের পর হত্যা : আটক ৫

যশোরের শার্শার বসতপুর গ্রামে ২য় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষনের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পাঁচ বখাটে যুবককে আটক করেছে শার্শা থানা পুলিশ। নিহত সেলিনা খাতুন শার্শা উপজেলার বসতপুর বড় কলোনী গ্রামের আব্দুল কাদেরের মেয়ে এবং ওই গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেনির ছাত্রী বলে তার স্বজনরা জানিয়েছেন। মঙ্গলবার সকালে নিহত সেলিনা খাতুনের (৯) বস্তাবন্দি লাশ বসতপুর বড় কলোনীর একটি খালের মধ্যে থেকে পুলিশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন। শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহম্মেদ কবীর হোসেন জানান, সেলিনা খাতুনকে সোমবার বিকেল থেকে পাওয়া যাচ্ছিল না । ওই সময় ঝড়বৃষ্টি হওয়ার সুযোগে একই গ্রামের ৪/৫ জন বখাটে যুবক আম দেওয়ার কথা বলে তাকে ফুসলিয়ে স্কুলের পাশ্বে একটি বাগানে নিয়ে যায় এবং রাতে তাকে ধর্ষন করার পর শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বস্তায় ভরে পাশে খালের ধারে ফেলে রেখে যায়। মঙ্গলবার সকালে গ্রামবাসী বস্তাবন্দি লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক সৈয়দ বায়েজিদ সেখান থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে গ্রামবাসীর তথ্য অনুযায়ী দুপুরের দিকে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পাঁচ যুবককে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানান। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিলো।






মন্তব্য চালু নেই