মেইন ম্যেনু

যশোরের খবর (২১/৮/১৪)

## পুলিশের কাছে হিরার স্বীকারোক্তি-যশোরে মান্নান হত্যার ঘটনায় সাতজন জড়িত:
যশোর অফিস : যশোর শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুল মান্নানকে পূর্বপরিকল্পিতভাবেই হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ হত্যা কান্ডের সাথে জড়িতছিলসাতজন। এরা হচ্ছে বেজপাড়া এলাকার জহর আলীর ছেলে হীরা, মজিবর রহমানের ছেলে পাচু, মোহাম্মদ মুন্সীর ছেলে মাসুদ, হালিমের ছেলে শাহাবুদ্দিন এবং একই এলাকার সেলিম, খালেক ও রফিক। গত সোমবার ঢাকা থেকে হীরাকে আটক পুলিশ। পরে তাকে মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে হীরাকে নিয়ে যাওয়া হয় ঘটনাস্থলে। সেখানে যাওয়ার পর যশোর পুলিশ সুপার আনিসুর রহমানের উপস্থিতিতে ও এলাকাবাসীর সামনে হীরা খুনের ঘটনার বর্ণনা করে।শহরের বেজপাড়ার দৈনিক রানার অফিস সংলগ্ন এএম ট্রেডার্সে ৯ আগস্ট বিকেলে খুন হয় আবদুল মান্নান। ওই হত্যা কান্ডের অন্যতম সদস্য হীরা ,সেলিম ও পাচু সরাসরি অংশ নেয়। প্রথমে সেলিম পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে। এরপর পাচু মান্নানের মৃত্যু নিশ্চিত করতে শ্বাসনালী কেটে দেয়। এ সময় পাশের রাস্তায় দাঁড়িয়ে ছিল বাকি পাঁচ। হিরার স্বীকারোক্তি নেওয়ার সময় উপস্থিতছিলেন যশোর পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার সৈয়দ মোস্তফা কামাল, কোতোয়ালি থানার ওসি ইনামুল হক, ওসি (তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমান, ডিবি ওসি মনিরুজ্জামান এবং মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শোয়েবউদ্দিন ।

## যশোরে ছয় ছাত্রকে মারপিট লক্ষাধিক টাকার মালামাল লূট:
যশোর অফিস: যশোর শহরের খোলাডাঙ্গা এলাকার বেনাপোল কমপ্লেক্স ছাত্রাবাসে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তারা ছয় ছাত্রকে ব্যাপক মারপিটকরেছে এবং তাদের নগদ টাকা,ল্যাপটপ,দুইটি মনিটর,৫টি মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। যাওয়ার সময় আল্টিমেটাম দিয়ে যায়। এ ঘটনায় ছাত্রাবাসের মালিক মজনুর রহমান বাদি হয়ে যশোর কোতয়ালি থানায় মামলা করেছে।
মঙ্গলবার সন্ধ্যারাতে খোলাডাঙ্গা গ্রামের হাফিজুর রহমানের পুত্র হামজা হাসিবুর রহমান ওরফে হোসেন,টিটো,জিম,হাবিব,মুন্নাসহ অজ্ঞাত ২/৩জন সন্ত্রাসী ২লাখ টাকা চাঁদাদাবি করে। টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ সশস্ত্র অবস্থায় ওই ছাত্রাবাসে হামলা চালায়। এ সময় তারা ছাত্র হারুন অর রশিদ,শামীমসহ ৬ জন ছাত্রকে মারপিট করে নগদ ৩৫শ’ টাকা,একটি ল্যাপটপ,২টি মনিটর,৫টি মোবাইল ফোনসহ ১লাখ ১০ হাজার টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

## যশোরে দুই কথিত রাইটার আটক:
যশোর অফিস:যশোর কোতয়ালি থানা পুলিশ দুই কথিত রাইটারকে আটক করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে,যশোর সদর উপজেলা মাহিদিয়া গ্রামের বাবুল হোসেন ও হালসা গ্রামের বাবু।
বুধবার বিকেলে যশোর কোতয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ ইনামুল হকের নির্দেশে ওই দুই কথিত রাইটারকে ডেকে আনা হয়। আটকের ব্যাপারে কোতয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ ইনামুল হকের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে। তারা কোন অপরাধের সাথে জড়িত আছে কিনা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

## জাতীয় সম্প্রচার নীতি মালার প্রতিবাদে যশোরে জেলা বিএনপি’র বিক্ষোভ সমাবেশ:
যশোর অফিস: বুধবার বিকেলে যশোর চৌরাস্তা মোড়ে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র যশোর জেলা শাখার উদ্যোগে জাতীয় সম্প্রচার নীতি মালার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এতে সভাপতিত্ব করেন যশোর জেলা বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সামছুল হুদা। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, আব্দুস সামাদ আজাদ,মারুফুল ইসলাম মারুফ,দেলোয়ার হোসেন খোকন,আবু মুছা,কাজী আজম,মুনির আহম্মেদ সিদ্দিকী বাচ্চু,এ্যাডভোকেট আবু মুরাদ,ফিরোজা কলি বুলবুলপ্রমুখ।

## যশোরে সাপের দংশনে একজনের মৃত্যু:
যশোর অফিস:যশোরে সাপের দংশনে বিপুল (২২) নামে এক যুবকের মৃত্যু ঘটেছে। সে যশোর চৌগাছা উপজেলা কুলিখা গ্রামের সাহেব আলীর পুত্র। বুধবার সকালে বিপুলকে সাপ দংশন করে।এতে সে গুরুতর আহত হয়। বাড়ির লোকজন তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই