মেইন ম্যেনু

মাগুরায় দুই মাদরাসা শিক্ষকের মধ্যে হাতাহাতি : অনির্দিষ্টকালের জন্য মাদরাসা বন্ধ

মাগুরা প্রতিনিধি ॥ মাগুরা সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসায় দুই শিক্ষকের মধ্যে প্রশ্নপত্র ফাসের অভিযোগে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার দুপুর ২.৩০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঐ মাদরাসা অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি শিক্ষক মাহফুজুর রহমান জানান, আমি ৭ম শ্রেণীর ক্লাস নেয়ার সময় বিজ্ঞান শিক্ষক আতাউর রহমান হঠাৎ করে ক্লাসে ঢুকে আমাকে বলে আপনি বলেছেন আমি নাকি প্রশ্নপত্র ফাস করেছি। এ সময় সে আমার পাঞ্জাবী টেনে ছিড়ে দেয় ও লাথি চড় মারার চেষ্টা করে। এ সময় লোকজন এসে ঠেকিয়ে দেয়। তিনি অভিযোগ করেন তার কাছে যারা প্রাইভেট পড়ে তাদেরকে তিনি প্রশ্ন আউট করে দেন। তাছাড়া মাদরাসার প্রিন্সিপালসহ অনেকের সাথেই প্রায়ই এরূপ র্দূব্যবহার করে থাকে।

অভিযুক্ত শিক্ষক আতাউর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, মাহফুজ হুজুর প্রায়ই আমার সম্পর্কে বাজে কথা বলে থাকেন। ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বলেন আমি প্রাইভেট পড়ানোর নামে তাদেরকে নষ্ট করছি। তা ছাড়া প্রশ্নপত্র ফাসের কথাও প্রায়ই বলেন। মিথ্যা অভিযোগের কারন শুনতে গেলে উল্টে উত্তেজিত হয়ে তিনি আমাকে মারতে আসে। তার সাথে আমার হাতাহাতির কোন ঘটনা ঘটেনি।

সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাহফুজুর রহমান জানান, তারা প্রায়ই এরূপ ঘটনা ঘটিয়ে থাকে। বিষয়টি নিয়ে যাতে নতুন করে সমস্যা তৈরী না হয় সে জন্য মাদরাসা বন্ধ ঘোষণা করেছি। পরবর্তীতে ম্যানেজিং কমিটির মিটিং করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ও মাদরাসা খোলার সিদ্ধান্ত নেব।






মন্তব্য চালু নেই