মেইন ম্যেনু

ভোট ভিক্ষা করতে গিয়ে নিজেকেই জুতোপেটা করলেন এই নেতা

ভোট বড় বালাই। কিন্তু জনগণের কাছে ভোট চাইতে গিয়ে নেতা-নেত্রীরা কি না করেন। কেউ দেদার উপঢৌকনের প্রতিশ্রুতি দেন তো কেউ আবার বাড়ির বাসন মেজে দেওয়ার কথাও বলেন। ভোট দিলে নিজের সর্বস্ব জনতাকে বিলিয়ে দেওয়ার অঙ্গীকারের উদাহরণও আছে বেশ কিছু। তাই বলে ভোট চাইতে গিয়ে নিজেকে জুতোপেটা করার মতো নজির বোধহয় গোটা বিশ্বে নেই।

তবে সেই নজিরও গড়লেন গো-বলয়ের এক নেতা। প্রকাশ্য জনসভায় নিজের কুর্তা পেতে ভোট ভিক্ষা করেও যখন জনতা মন গলাতে পারছিলেন না, তখনই আগের সব ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়ে নিজেকেই জুতোপেটা করলেন উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহর বিধানসভা অঞ্চলের সমাজবাদী পার্টির প্রার্থী সুজাত আলম। নিজের জুতো দিয়ে নিজের মাথায় মেরে ভোটভিক্ষা করলেন এই সপা নেতা। আর তাতেই জনসভায় উঠল হাসির রোল। জনসভায় উপস্থিত এক ব্যক্তি আবার দৃশ্য ভিডিও করে ছড়িয়ে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

শনিবার বুলন্দশহরের হিন্দু অধ্যুষিত এলাকায় জনসভা ছিল সপা নেতা সুজাত আলমের। মুসলিম সম্প্রদায়ের ওই নেতা স্বাভাবিকভাবেই হিন্দু ভোট পাওয়ার জন্য এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করার কথা বলেন। তারপর নিজের কুর্তা পেতে ভোটভিক্ষা করেন। তাতেও যখন জনতার মন গলানো যায়নি, তখনই তিনি বলেন, ‘হিন্দু ভাইরা, যদি আমি কোনও ভুল করে থাকি তার জন্য আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা চাইছি।’ এই বলে তিনি নিজের পা থেকে জুতো খুলে নিজের মাথায় মারতে শুরু করেন।

ততক্ষণে তাঁকে থামানোর জন্য দলের অন্যান্য কর্মী-সমর্থকরা তাঁর হাত থেকে জুতো কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু বিফলে যায় সেই চেষ্টা। জনতার হাততালি শুনেই থামেন আলম। সংবাদসংস্থা এএনআই সেই ভিডিও টুইটারে পোস্ট করেছে। ওই নেতার এহেন কাণ্ডে রীতিমতো নিন্দার ঝড় উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। ভোটভিক্ষা করতে গিয়ে কোথাও জনপ্রতিনিধিরা আম জনতার কাছে হাসির পাত্র হয়ে যাচ্ছেন না তো, প্রশ্ন উঠছে সর্বত্র।-সংবাদ প্রতিদিন






মন্তব্য চালু নেই